চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
ব্রাউজিং ট্যাগ

টেরেসা মে

অনাস্থা ভোটে কোনোমতে টিকল টেরেসা মে’র সরকার

অনাস্থা ভোটে টিকে গেলো ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে’র সরকার। ১৯ ভোটের ব্যবধানে জয় পাওয়ার পর এখন ব্রেক্সিটের নতুন পথ খুঁজতে একসঙ্গে কাজ করতে পার্লামেন্টের সব সদস্যদের আহ্বান জানিয়েছেন মে। ব্রিটিশ পার্লামেন্টের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় হারের একদিন পরই নতুন পরীক্ষার মুখোমুখি হন প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে। ব্রেক্সিট চুক্তিটি ২৩০ ভোটের বিশাল ব্যবধানে পরাজয়ের পর সরকারের ওপর আনা হয় অনাস্থা প্রস্তাব। আর তাতেই ভোটাভুটির সিদ্ধান্ত। বিশ্বব্যাপী শুরু হয় তুমুল আলোচনা - মে সরকারের ভাগ্যে কী হয়। বুধবার অনুষ্ঠিত অনাস্থা ভোটে সরকারের…

ব্রেক্সিট: টেরেসা মে’র বিশাল হারে ব্রিটিশদের উল্লাস

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়া নিয়ে প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে’র ব্রেক্সিট চুক্তিটি নাকচ করে দিয়েছে ব্রিটিশ পার্লামেন্ট। ২৩০ ভোটের বিশাল ব্যবধানে চুক্তিটি প্রত্যাখ্যান করেন ব্রিটিশ এমপিরা। টানা পাঁচ দিন ধরে অনেক তর্ক-বিতর্ক আর আলোচনা-সমালোচনার পর শেষ পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে’র ব্রেক্সিট প্রস্তাবের বিপক্ষেই রায় দেন ব্রিটিশ এমপিরা। মঙ্গলবার ৬৫০ সদস্যের হাউজ অব কমনসে প্রস্তাবটি বাতিলের পক্ষে সরকারি দলের ১১৮ জন সদস্যসহ ভোট দেন ৪৩২ জন সদস্য আর প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেন ২০২ জন সদস্য। পার্লামেন্টে…

ব্রেক্সিটের ব্যর্থতা হবে বিশ্বাসের সর্বনাশা লঙ্ঘন: টেরেসা মে

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে বলেছেন, ব্রেক্সিট কার্যকরের প্রক্রিয়া ব্যর্থ হলে তা হবে যুক্তরাজ্যের গণতন্ত্রে এক সর্বনাশা ও ক্ষমার অযোগ্য বিশ্বাস লঙ্ঘন। সানডে এক্সপ্রেস পত্রিকায় তার লেখা এক প্রবন্ধে ব্রিটিশ এমপিদের সতর্ক করে এ কথা বলেছেন তিনি। ওই লেখায় প্রধানমন্ত্রী পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউজ অব কমনসে মঙ্গলবার অনুষ্ঠিতব্য ভোটাভুটিতে তার প্রস্তাবিত ব্রেক্সিট চুক্তিকে সমর্থন দেয়ার অনুরোধ জানান। মে বলেন, সমর্থন না দিলে হয়তো যুক্তরাজ্যকে কোনো সুবিধাজনক চুক্তি ছাড়াই ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) ছাড়তে হবে; অথবা হয়তো ইইউ থেকে…

চুক্তি ছাড়াই ব্রেক্সিটের সিদ্ধান্তে আতঙ্কে ব্রিটিশ ব্যবসায়ীরা

চুক্তি ছাড়াই ব্রেক্সিটের জন্য প্রস্তুতি নিয়েছে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে’র মন্ত্রিসভা। তবে এ সিদ্ধান্তের তীব্র সমালোচনা করছেন ব্রিটিশ ব্যবসায়ীরা। তাদের আশঙ্কা, চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত হওয়ার মতো যথেষ্ট সময় এখন আর নেই। ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়ার আর মাত্র ১০০ দিন বাকি। আগামী ২৯ মার্চ ব্রেক্সিট প্রক্রিয়া বাস্তবায়ন শুরু হবে বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ সরকার। মঙ্গলবার এক মন্ত্রিসভার বৈঠকে চুক্তি ছাড়াই ব্রেক্সিটের এ সিদ্ধান্ত নেন মন্ত্রীরা। তারা চান সরকারের সব বিভাগই যেন এই…

ব্রেক্সিট: ভোট পেছানোয় মে’র বিরুদ্ধে করবিনের অনাস্থা প্রস্তাব, সরকারের ‘না’

ব্রেক্সিট ইস্যুতে ভোট হঠাৎ পিছিয়ে দেয়ায় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মের বিরুদ্ধে অনাস্থা ভোটের প্রস্তাবনা রেখেছেন পার্লামেন্টে বিরোধী দলীয় নেতা জেরেমি করবিন। ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বেরিয়ে যাওয়া বা ব্রেক্সিট বিলের ওপর পার্লামেন্টে ভোট দেয়ার গত সপ্তাহের তারিখ পিছিয়ে ১৪ জানুয়ারি থেকে শুরু সপ্তাহের যে কোনো সময়ে (সম্ভাব্য ১৮ জানুয়ারি) নির্ধারণ করেন প্রধানমন্ত্রী। সবার সামনেই মে স্বীকার করে নেন, তখন ভোটাভুটি হলে নিশ্চিত হেরে যেতেন তিনি। এই ‘একমাস অপচয়ের জন্যে’ প্রধানমন্ত্রী মে’র বিরুদ্ধে পার্লামেন্টে…

বেক্সিট নিয়ে ক্ষোভ ঝেড়ে এমপিদের একমত হওয়া উচিত: অ্যাম্বার রাড

বেক্সিট নিয়ে রাজনৈতিকভাবে বিভক্ত এমপিদের ক্ষোভ ঝেড়ে ঐকমত্য গঠন করা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাজ্যের কর্ম ও পেনশন বিষয়ক সচিব অ্যাম্বার রাড। ডেইলি মেইলকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, পারস্পরিক এই দ্বিধাবিভক্তির কারণে ব্রেক্সিট প্রক্রিয়া থেকে যাওয়ার ঝুঁকিতে আছে। ব্রিটিশ এমপিদের কাছে খসড়া ব্রেক্সিট (ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়া) চুক্তি এমপিদের কাছে আরও গ্রহণযোগ্য করে তোলার প্রস্তাব গত সপ্তাহে ইইউ নেতারা নাকচ করে দেন এই বলে যে, এই চুক্তি নিয়ে আরেক দফা আলোচনায় বসবেন না তারা। এরপরই এমন…

পার্লামেন্টে ‘আস্থা’ পেলেন টেরেসা

ব্রিটিশ পার্লামেন্টের আস্থা ভোটে উতরে গেলেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে। পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউজ অব কমনসে তার পক্ষে ভোট দিয়েছেন ২০০ সংসদ সদস্য। আর বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন ১১৭ জন। অর্থাৎ আস্থা ভোটে ৮৩টি ভোটে জিতেছেন তিনি। এর মধ্যে কনজারভেটিভ পার্টির ৬৩ শতাংশ এমপি টেরেসার পক্ষে এবং ৩৭ শতাংশ বিপক্ষে ভোট দেন। এর ফলে আরও এক বছরের জন্য কনজারভেটিভ পার্টির সংসদীয় প্রধানের পদ নিশ্চিত করলেন মে। ভোটে জয় নিশ্চিতের পর ডাউনিং স্ট্রিটে দেয়া ভাষণে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী জনগণ ‘যে ব্রেক্সিটের পক্ষে ভোট দিয়েছিল’ সেই…

হারের আশঙ্কায় হঠাৎ করেই স্থগিত ব্রেক্সিট ভোটাভুটি

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়া বা ব্রেক্সিট চুক্তি নিয়ে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের ভোট স্থগিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে। গত ৪ ডিসেম্বর চুক্তির পক্ষে সমর্থন জোটাতে টেরেসা হাউজ অব কমনসে প্রস্তাবটি উপস্থাপন করলে ক্যাবিনেট পূর্ণাঙ্গ আইনি সুপারিশ উপস্থাপন না করায় সেটি ফিরিয়ে দেন এমপিরা। কথা ছিল, পূর্ণাঙ্গ সুপারিশ উপস্থাপনের পর আজ এর ওপর ভোটাভুটি হবে। চুক্তি নিয়ে পার্লামেন্টে এমপিদের ভোটের নির্ধারিত সময় হঠাৎই পিছিয়ে দিয়েছেন তিনি। মূলত পার্লামেন্টের ভোটাভুটিতে ব্রেক্সিট চুক্তিটি পাস না হওয়ার…

ব্রেক্সিট: মে’র সিদ্ধান্তে আইনী জটিলতার শঙ্কা

পুনরায় ব্রেক্সিটে ফিরে না আসতে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে’র সিদ্ধান্ত আইরিশদের সাথে সীমান্ত সংকট নিরসনে বাধা হতে পারে বলে সতর্ক করেছেন আইনী পরামর্শকরা।  এ সিদ্ধান্ত আইনী জটিলতাও সৃষ্টি করতে পারে। সেই সাথে দুই পক্ষের মধ্যে সমঝোতা আরো দীর্ঘ করতে পারে। সম্প্রতি প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে দেখা যায়, প্রধানমন্ত্রী আইরিশদের সাথে সীমান্ত শিথিল করার কথা বলেছেন। সেই সাথে নতুন কোন চুক্তি ছাড়া ইউরোপিয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে বের হয়ে আসার আইনগত বাধার কথাও বলা হয়েছে সেখানে। এদিকে ডেমোক্রেটিক দলের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে এই সিদ্ধান্ত…

ব্রেক্সিট নিয়ে হারের হ্যাট্রিকে টেরেসা

একই দিনে পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে ব্রেক্সিট ইস্যু নিয়ে পর পর তিনটি প্রস্তাবে হেরে গেলেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সঙ্গে যুক্তরাজ্যের হওয়া খসড়া ব্রেক্সিট চুক্তির পক্ষে সমর্থন জোটাতে মঙ্গলবার টেরেসা হাউজ অব কমনসে প্রস্তাবটি উপস্থাপন করেন। এমপিরা ইতোমধ্যেই বেক্সিট চুক্তিটি নিয়ে সন্দিহান ছিলেন। তার ওপর হাউজ অব কমনসের সামনে প্রস্তাবটির সারসংক্ষেপ প্রকাশ করায় আরও ক্ষেপে যান তারা। আইনি পরামর্শের সম্পূর্ণটা ইস্যু না করাকে পার্লামেন্টের অবমাননা বলে মন্তব্য করেছেন তারা। পার্লামেন্ট অবমাননা…