চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রেকর্ডের হাতবদলে আবেগঘন পেলে-রোনালদো

অবশেষে সেই ক্ষণটি এসেছে। পেশাদার ফুটবলে সর্বোচ্চ গোলদাতার রেকর্ডে ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি পেলেকে ছাড়িয়ে গেছেন পর্তুগিজ কিংবদন্তি ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। এরপর থেকে অভিবাদনে ভাসছেন সিআর সেভেন। স্বয়ং পেলে জানিয়েছেন শুভেচ্ছাবার্তা। আবেগঘন প্রতিবার্তা দিয়েছেন রোনালদোও।

পেলের জামানার সব পরিসংখ্যানের হিসাব খুঁটিনাটি না থাকলেও কিছু হিসাব মানদণ্ড করে রাখা হয়েছে। সেই হিসেবে জাতীয় দল আর ক্লাব মিলিয়ে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড এখন রোনালদোর। পেলের মতে অফিসিয়াল ম্যাচে তার গোলসংখ্যা ৭৬৭। সেটি দারুণ এক হ্যাটট্রিকে টপকে রোনালদোর গোলসংখ্যা এখন ৭৭০।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

কীর্তি ছোঁয়ার পর রোনালদোর সঙ্গে একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন পেলে। লিখেছেন- অভিনন্দন। অফিসিয়াল ম্যাচে আমার গোলের রেকর্ড ভাঙায়। তোমার খেলা ভালোবাসি, এটা কারও অজানা নয়।

বিজ্ঞাপন

রেকর্ড গড়া ম্যাচের পর ইনস্টাগ্রামে আবেগঘন পোস্ট দিয়েছেন রোনালদোও। তাকে স্বীকৃতি দেয়ায় জানিয়েছেন ধন্যবাদ। প্রকাশ করেছেন কৃতজ্ঞতা। লিখেছেন, পেলেকে ছাড়িয়ে বিশ্ব ফুটবলের ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলস্কোরার হয়ে নিজের আপ্লুত ভাবনার কথা।

জুভেন্টাসকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেরা আটে নিতে পারেননি। সমালোচনার তীরবাণে জর্জরিত হয়ে চলছিলেন তারপর থেকে। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ফুরিয়ে গেছেন, পারফরম্যান্স নিভু নিভু, জুভদের জন্য বোঝা এখন, এমন কথাও শুনতে হয়েছে। দারুণ এক হ্যাটট্রিকে রোববার রাতে জবাবটা মাঠেই দেন পর্তুগিজ মহাতারকা।

সিরি আতে ক্যাগলিয়ারির মাঠ থেকে ৩-১ গোলের জয় তুলে ফিরেছে জুভেন্টাস। তিন গোলে চারিদিকে জ্বলতে থাকা সমালোচনা-কুপির সলতেয় জল ঢেলেছেন রোনালদো। প্রতিপক্ষের মাঠে প্রথমার্ধে ১০ থেকে ৩২ মিনিট, তথা ২২ মিনিটের মধ্যে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেছেন তিনি।