চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মৃত্যুর আগে ‘সুইসাইড নোট’ লিখেছিলেন দর্পণ

ছোটপর্দার তুমুল জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব’র ছোট ভাই দর্পণের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে গত বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) ভোরে। মোহাম্মদপুরের ভাড়া বাসা থেকে তার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

প্রাথমিক তদন্তে দর্পণ দ্বীপ আত্মহত্যা করেছেন বলেই ধারণা করছে পুলিশ। এ বিষয়ে সত্যতা স্বীকার করেছেন আদাবর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাউসার আহমেদ।

বিজ্ঞাপন

চ্যানেল আই অনলাইনকে কাউসার বলেন, শেখেরটেকের একটি বাসায় স্ত্রী ও বাচ্চাসহ ভাড়া থাকতেন দর্পণ। ভোররাতে তার আত্মহত্যার খবর শোনে সেখানে যায় পুলিশের একটি টিম। সরেজমিনে ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলে থাকতে দেখা যায় দর্পণকে।

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরো জানান, আমরা সেখান থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠাই। এরপর সোহরাওয়ার্দি হাসপাতালে পোস্টমর্টেম শেষে বৃহস্পতিবার দুপুরেই তার পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়।

তার পারিবারিকসূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মাগরিবের নামাজের পর মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থান মসজিদে দীপুর জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর সেই কবরস্থানেই তাকে দাফন করা হয়।

স্বেচ্ছা মৃত্যুর পথ কেনো দর্পণ বেছে নিয়েছেন এ বিষয়ে কিছু জানা যায়নি। তবে মৃত্যুর আগে ‘সুইসাইড নোট’ লিখে গেছেন দর্পণ। যাতে লেখা ছিলো: আমার আত্মহত্যার জন্য কেউই দায়ী না। জীবনের পদে পদে হারতে হারতে এ দেহ নিয়ে বাঁচতে চাই না। আমি জানি পৃথিবীর কষ্ট কিছু না। মৃত্যুর পর অনেক কষ্ট হবে।

নিজের চার বছরের ছেলে অংশ’র উদ্দেশ্যে তিনি লিখে যান, ‘অংশ, আমি তোমাকে খুব ভালোবাসি।’

Bellow Post-Green View