চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নিষ্প্রভ ওয়াটসন, পারল না রংপুরও

ঢাকা-চট্টগ্রামের দুইপর্ব মিলিয়ে পাঁচ ম্যাচে মাত্র একটিতে জয়। দলের যখন এই অবস্থা, তখন অস্ট্রেলিয়া থেকে উড়িয়ে আনা হয় শেন ওয়াটসনকে। অধিনায়কের আর্মব্যান্ডও তুলে দেয়া হয় অজি তারকার হাতে। কিন্তু তাতেও কাজ হল না। ব্যাট হাতে নিষ্প্রভ ওয়াটসন, ফলে হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় রংপুর রেঞ্জার্সকে। মুশফিকুর রহিমের খুলনা টাইগার্স জেতে ৫২ রানে।

ছয় ম্যাচে এটি খুলনার চতুর্থ জয়। আর ছয় ম্যাচে পঞ্চম হার রংপুরের।

মুশফিকের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ের সঙ্গে নাজিবুল্লাহ জাদরানের ঝড়ো ইনিংসে রংপুর রেঞ্জার্সের বিপক্ষে ৭ উইকেটে ১৮২ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে খুলনা টাইগার্স। জবাবে রংপুরের ইনিংস থামে ৯ উইকেটে ১৩০ রানে।

দলীয় এবং ব্যক্তিগত ৫ রানেই আউট হয়ে যান ওয়াটসন। ঝড়ের আভাস দিয়ে ফেরেন ৯ বলে ২০ রান করা মোহাম্মদ নাঈম। ক্যামেরন ডেলপোর্ট ফেরেন ৯ রান করে। স্কোর বোর্ড হাফসেঞ্চুরি ছোঁয়ার আগে তিন উইকেট হারায় রংপুর। ৩৪ রান করে চেষ্টা চালিয়েছিলেন লুইস গ্রেগরি। কিন্তু অন্য ব্যাটসম্যানদের সহযোগিতা না পাওয়া এগোনো হয়নি তার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২১ রান (১১ বলে) মোস্তাফিজুর রহমানের।

একে একে আউট হন ফজলে মাহমুদ (৪), মোহাম্মদ নবি (৭), সাদমান ইসলাম (১৬), জহুরুল ইসলাম (১) ও মুকিদুল ইসলাম (০)।

বিজ্ঞাপন

খুলনার হয়ে চার উইকেট নেন শহিদুল ইসলাম। তানভীর ইসলামের পকেটে দুই উইকেট।

শুক্রবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিপিএল চলতি সপ্তম আসরের ২২তম ম্যাচে টস জিতে খুলনাকে আগে ব্যাটিংয়ে পাঠায় রংপুর।

প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে ‘কাটার মাস্টার’ মোস্তাফিজুর রহমানের গতির মুখে পড়ে ৪৫ রানেই টপঅর্ডার তিন ব্যাটসম্যানের উইকেটে হারিয়ে বিপাকে পড়ে খুলনা। দলীয় ৮৪ রানে খুলনা হারায় মেহেদী হাসান মিরাজ, রাইলি রুশো, শামসুর রহমান শুভ ও নাজমুল হোসেন শান্তর উইকেট। দলের এমন কঠিন পরিস্থিতিতে হাল ধরেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

পঞ্চম উইকেটে আফগান ক্রিকেটার নাজিবুল্লাহ জাদরানকে সঙ্গে নিয়ে গড়েন ৮২ রানের জুটি। একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ফিফটির পথেই ছিলেন নাজিবুল্লাহ। তবে ক্যাচ তুলে দিয়ে সাজঘরে ফেরার আগে ২৬ বলে ৬টি চার ও এক ছক্কায় ৪১ রান করে ফেরেন এই আফগান ক্রিকেটার।

ইনিংস শেষ হওয়ার মাত্র ৪ বল বাকি থাকতে মোস্তাফিজের বলে বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে সাজঘরে ফেরেন মুশফিক। তার আগে ৪৮ বল খেলে ৪টি চার ও দুই ছক্কায় দলীয় সর্বোচ্চ ৫৯ রান করেন তিনি। তার দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ১৮২ রান তুলতে সক্ষম হয় খুলনা।

রংপুরের হয়ে ২৮ রানে ৩ উইকেট শিকার করেন জাতীয় দলের তারকা পেসার মোস্তাফিজুর রহমান।

বিজ্ঞাপন