চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ডা. মঈনের আত্মত্যাগ শব্দ-বাক্যে প্রকাশের মতো নয়: মাশরাফী

‘বীরযোদ্ধা’কে স্যালুট জানিয়ে আবেগঘন স্ট্যাটাস

করোনা রোগীদের চিকিৎসা দিতে দিতে নিজেই আক্রান্ত হয়ে জীবন দিয়েছেন সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডা. মো. মঈন উদ্দিন। বুধবার ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

মানবিক ডাক্তার হিসেবে পরিচিত মঈন উদ্দিনের মৃত্যুতে সারাদেশে চলছে শোকের মাতম। বাংলাদেশের সফলতম ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা মহৎ প্রাণের এ ডাক্তারের আত্মত্যাগের কথা স্মরণ করে ফেসবুকে দিয়েছেন আবেগঘন এক স্ট্যাটাস।

বিজ্ঞাপন

ডাক্তার মঈনকে বীরযোদ্ধা বলে স্যালুট জানিয়েছেন মাশরাফী। নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য তার স্ট্যাটাসে তুলে ধরেছেন ক্রান্তিকালের এ যোদ্ধার মানবসেবার দৃষ্টান্তগুলো।

বিজ্ঞাপন

মাশরাফী লিখেছেন, ‘সবাইকে শোকে ভাসিয়ে চলে গেলেন এক মহৎ প্রাণ ডাক্তার! করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গতকাল সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক মানবিক ডাঃ মোঃ মঈন উদ্দিন চলে গেলেন না ফেরার দেশে! তিনি ছিলেন করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ফ্রন্ট লাইনের যোদ্ধা। তাঁর এই মৃত্যু হৃদয় বিদীর্ণ করার মত।

বিজ্ঞাপন

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের ছোবলে আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশও আক্রান্ত। দেশের এই মহাক্রান্তিকালে ডা. মঈন উদ্দিন ছিলেন দেশের মানুষের জন্য আত্মোৎসর্গীকৃত। মৃত্যুর আগ মুহূর্ত পর্যন্ত একজন মানবসেবী হিসেবে মানুষের সেবা করে গেছেন তিনি। নিজের জীবনের সর্বোচ্চ ঝুঁকি নিয়ে মানুষকে তিনি চিকিৎসাসেবা দিয়ে গেছেন।

মানুষের প্রতি, দেশের প্রতি তার এই আত্মত্যাগ শব্দ-বাক্যে প্রকাশের মত নয়। মানবতার জয়গান গাওয়া ক্রান্তিকালের এই যোদ্ধাকে নিশ্চয় গোটা জাতি আজীবন পরম শ্রদ্ধায় স্মরণ করবে।

আমি তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি। সবশেষে আমি এই বীরযোদ্ধাকে জানাচ্ছি- “স্যালুট”।’

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার আগ মুহূর্ত পর্যন্ত ডা. মঈন রোগীদের সেবায় ব্যস্ত ছিলেন। সিলেট ওসমানী হাসপাতালের ওয়ার্ড, ইবনে সিনার চেম্বার, গ্রামের বাড়িতে রোগী দেখা- সবখানেই ব্যস্ত ছিলেন তিনি। দেশের কঠিন বিপদের সময়ে অবিরাম সেবা দিয়ে গেছেন রোগীদের।