চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনাভাইরাস: ভারতে কোভ্যাক্সিনের ট্রায়াল শুরু

ভারতে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু হয়েছে। দেশটির গবেষকদের উদ্ভাবিত কো-ভ্যাক্সিন শুক্রবার ত্রিশ বছর বয়সী এক যুবকের শরীরে প্রয়োগ করা হয়।

ওই যুবককে আগামী এক সপ্তাহ চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে থাকতে হবে। শনিবারও কয়েকজনের শরীরে কোভ্যাক্সিন পরীক্ষামূলকভাবে প্রয়োগ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি বলছে, অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্সেস (এইমস) হাসপাতালে শুক্রবার ভ্যাকসিনটি প্রয়োগ করা হয়।

প্রতিষ্ঠানটির কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক এবং মানবদেহে করোনার ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগের দায়িত্বে থাকা চিকিৎসক সঞ্জয় রাই জানান, শুক্রবার দুপুরে ইন্ট্রামাসকুলার ইনজেকশনের মাধ্যমে ওই স্বেচ্ছাসেবীর দেহে পরীক্ষামূলকভাবে ০.৫ মিলিগ্রাম কোভ্যাক্সিন প্রয়োগ করা হয়। তাকে আগামী সাত দিন নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হবে।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ‘স্বেচ্ছাসেবক ওই যুবককে কয়েকদিন আগে থেকেই নানা পরীক্ষা নিরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে। মোটামুটি তার স্বাস্থ্য স্বাভাবিক। তাছাড়া তারও কোনও কোমর্বিডিটির সমস্যাও নেই।’

জানা যায়, গত শনিবার থেকে এইমসে সাড়ে তিন হাজারেরও বেশি স্বেচ্ছাসেবক ওই ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক ব্যবহারের জন্যে নিজেদের নাম নথিভুক্ত করেছেন। তাদের মধ্যে থেকে ২২ জনের দেহে প্রথম পর্যায়ে করোনার টিকাটি প্রয়োগ করা হবে।

আজ শনিবার আরও কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবকের শরীরে ওই করোনা টিকার প্রয়োগ করা হবে বলে জানিয়েছেন এইমসের গবেষকরা। তবে সকলের ক্ষেত্রেই গোটা শরীরের নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পরেই কোভ্যাক্সিন প্রয়োগ করা হবে।

ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপে মানবশরীরে কোভ্যাক্সিন প্রয়োগের অনুমোদন দেওয়ার পরেই যারা নিজেদের শরীরে এই টিকা প্রয়োগ করতে চান তাদের আবেদন করতে বলা হয়েছিল।

আগ্রহীদের মধ্যে থেকে গত শনিবার এইমসের নীতি নির্ধারক কমিটি মোট ১০০ জনের দেহে করোনার টিকা প্রয়োগের ছাড়পত্র দিয়েছে। তবে সব মিলিয়ে প্রথম ধাপে মোট ৩৭৫ জনের শরীরে টিকাটি প্রয়োগ করা হবে। পরবর্তীকালে দ্বিতীয় ধাপে দেশের ১২টি আলাদা আলাদা জায়গা থেকে মোট ৭৫০ জনের শরীরে প্রয়োগ করা হবে কোভ্যাক্সিন।