চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ইয়াসের ক্ষতিকর প্রভাব মোকাবেলায় কৃষকদের সতর্ক থাকার আহ্বান

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের ক্ষতিকর প্রভাব থেকে রক্ষার জন্য বোরো ধান সংগ্রহ সহ বিভিন্ন ধরনের কৃষি বিষয়ক পরামর্শ দিয়েছে কৃষি মন্ত্রণালয়।

সোমবার কৃষি মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, আবহাওয়া অধিদপ্তের তথ্য অনুযায়ী, বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত গভীর নিম্নচাপটি ঘনীভূত হয়ে ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’ এ পরিণত হয়েছে। ইয়াসের প্রভাবে আগামীকাল ২৫ মে থেকে ২৭ মে পর্যন্ত দেশের ৩০টি জেলায় ঝড়ো হাওয়া সহ হালকা থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

জেলাগুলো হলো, সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, পটুয়াখালী, বরগুনা, বরিশাল, ভোলা, চুয়াডাঙ্গা, যশোর, ঝিনাইদহ, কুষ্টিয়া, মাগুরা, মেহেরপুর, নড়াইল, রাজবাড়ী, ফরিদপুর, মাদারীপুর, গোপালগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, শরীয়তপুর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, জয়পুরহাট, নওগাঁ, নাটোর, পাবনা, রাজশাহী, সিরাজগঞ্জ ও বগুড়া।

এসব জেলায় ঘূর্ণিঝড়ের ক্ষতির হাত থেকে ফসলকে রক্ষার জন্য কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর বোরো ধান ৮০ শতাংশ পরিপক্ব হয়ে গেলে দ্রুত সংগ্রহ, সংগ্রহ করা ফসল পরিবহন না করা গেলে মাঠে গাদা করে পলিথিন শীট দিয়ে ঢেকে রাখার আহ্বান জানিয়েছে। এছাড়াও পরিপক্ব সবজি ও ফল বিশেষ করে আম ও লিচু দ্রুত সংগ্রহ, সেচ, সার ও বালাইনাশক প্রয়োগ না করা, দন্ডায়মান ফসলকে পানির স্রোত থেকে রক্ষার জন্য বোরো ধানের জমির আইল উঁচু করে দেওয়া, নিষ্কাশন নালা পরিষ্কার রাখার জন্যও বলা হয়েছে। যাতে জমিতে পানি জমে না থাকতে পারে।

একই সঙ্গে খামারজাত সকল পণ্য নিরাপদ স্থানে রাখা, আখের ঝাড় বেঁধে দেওয়, কলা ও অন্যান্য উদ্যানতাত্বিক ফসল এবং সবজির জন্য খুঁটির ব্যবস্থা করা, পুকুরের চারপাশ জাল দিয়ে ঘিরে দেওয়া যাতে ভারি বৃষ্টিপাতের পানিতে মাছ ভেসে না যায়, গবাদি পশু ও হাঁস-মুরগী শুকনো ও নিরাপদ জায়গায় রাখার বিষয়ে কৃষি আবহাওয়া বিষয়ক পরামর্শ দান করেছে।

বিজ্ঞাপন