চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘আমাদের পেসাররা স্পিনারদের চেয়ে ভালো’

ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়াকে ঘরের মাঠে বাংলাদেশ হারিয়েছিল স্পিন উইকেট বানিয়ে। কিন্তু আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ থেকে সেই মন্ত্রে উল্টো ধরা খাচ্ছে স্বাগতিকরা। এবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে পারল না মুমিনুল হকের দল।

চট্টগ্রামের পর মিরপুর টেস্টেও হেরেছে বাংলাদেশ। নাজমুল হাসান পাপন ম্যাচ শেষে আক্ষেপ করলেন একাদশে একাধিক পেসার না থাকায়। বিসিবি সভাপতি বললেন, দুই টেস্টেই তাকে জানানো হয়েছিল দুই পেসার খেলানো হবে।

বাস্তবে একজন পেসার নিয়েই ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে লড়াইয়ে নেমেছে বাংলাদেশ। চট্টগ্রামে খেলেছেন মোস্তাফিজুর রহমান, মিরপুরে আবু জায়েদ রাহি। দুই পেসারই সফল হয়েছেন বল হাতে।

স্পিন উইকেট বানিয়ে পেসারদের আড়াল করে রাখার ব্যাপারটি ভালো লাগছে না নাজমুল হাসানের। স্কোয়াডে ৫ পেসার থাকার পরও কেনো একজন মাত্র একাদশে সে প্রশ্ন তারও।

বিজ্ঞাপন

‘সমস্যা সব জায়গা আছে, সেটি স্বীকার করে নিচ্ছি। আমাদের তেমন পরিকল্পনা ছিল না। আমাদের পেসাররা স্পিনারদের চেয়ে ভালো। হাতেগোনা কয়টা স্পিনার আছে? সাকিব ছাড়া কয়জন আছে। পেসার অনেকগুলো আছে। না খেলালে লাভটা কী। চট্টগ্রামে, এখানে দুইজন (পেসার) খেলানো হবে কনফার্ম ছিল।’

‘একটা জিনিস হঠাৎ করে দেখছি আফগানিস্তান সিরিজ থেকে শুরু হয়েছে স্পিন উইকেট, স্পিন উইকেট, স্পিন উইকেট। আমাদের একটা সময় ছিল স্পিনে আমরা মোটামুটি ভালো ছিলাম। কারণ আমাদের পেস ভালো ছিল না। গত তিনটা বছর ধরে আমরা ধারাবাহিকভাবে ভাবছি কীভাবে পেসবান্ধব উইকেট বানানো যায়। খুব বেশি উন্নতি করেছি তা না, তবে আমরা অনেক উন্নতি করেছি ঘরোয়া ক্রিকেটে।’

‘আমাদের সেটার ফলশ্রুতিতে যদি দেখেন, আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেটে বা যে টুর্নামেন্টগুলা করলাম পেসাররা ভালো বল করেছে। আমাদের এখন অনেকগুলা পেসার রয়েছে। এতগুলো পেসার থাকতে আমি পেসার খেলাবো না।’

‘একটা অলরাউন্ডার নেয়ার জায়গা বন্ধ করে দিয়ে ৫ জন পেসার নিলাম। কিন্তু খেলাচ্ছি না। তাহলে নেই কেনো আমরা। যদি দল নির্বাচনের কথা বলেন, আমার বলার কিছু নেই।’

বিজ্ঞাপন