চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আফগান নারীদের মুখ ঢাকা বোরকা পরার নির্দেশ

জনসমক্ষে নারীদের মুখ ঢেকে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন আফগানিস্তানের সর্বোচ্চ নেতা। নির্দেশ না মানলে পরিবারের পুরুষ অভিভাবকের তিন দিনের জেল-জরিমানার মুখোমুখি হতে হবে।

শনিবার এ সংক্রান্ত একটি ডিক্রি জারি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

Reneta June

তালেবান প্রধান হাইবাতুল্লাহ আখুনজাদার জারি করা ওই ডিক্রিতে বলা হয়েছে- নারীদের একটি চাদোরি (মাথা থেকে পা পর্যন্ত বোরকা) পরা উচিত, কারণ এটি ঐতিহ্যবাহী এবং সম্মানজনক।

বিজ্ঞাপন

ধর্ম প্রচার ও অধর্ম প্রতিরোধ মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র কাবুলে এক সংবাদ সম্মেলনে শীর্ষনেতা হাইবাতুল্লাহ আখুনজাদার ডিক্রিটি পড়ে শোনান।

ওই ডিক্রিতে বলা হয়েছে- কোনো নারী বাড়ির বাইরে মুখ ঢেকে বের না হলে তার বাবা বা নিকটতম পুরুষ আত্মীয়ের সঙ্গে সরকারি কর্মকর্তারা সাক্ষাৎ করবেন এবং তাকে গ্রেফতার করা হতে পারে কিংবা তিনি সরকারি চাকরিজীবী হলে তাকে বরখাস্ত করা হবে।

তালেবান জানিয়েছে, মুখ ঢেকে রাখার জন্য বোরকা হচ্ছে আদর্শ। ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তালেবানের প্রথম দফা শাসনামলে আফগান নারীদের এ ধরনের বোরকা পরতে বাধ্য করা হতো। আফগানিস্তানে বেশিরভাগ নারীই মাথায় স্কার্প পরেন, কিন্তু কাবুলের মতো শহরাঞ্চলে অনেকেই তাদের ঢেকে রাখেন না।

গত কয়েক মাস ধরে তালেবান নেতারা বিশেষ করে ধর্ম প্রচার এবং অধর্ম প্রতিরোধ মন্ত্রণালয় থেকে অনেক নতুন বিধিনিষেধ ঘোষণা করেছে। আর এসব কারণে তাদের বিরুদ্ধে সমালোচনা ও আন্তর্জাতিক চাপও বেড়েছে।

গত বছরের আগস্টে আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করে তালেবান। ওই সময় গোষ্ঠীটি জানিয়েছিল, তারা প্রথমবারের মতো এবার কট্টরপন্থা অবলম্বন করবে না। অবশ্য গত মার্চে বালিকাদের উচ্চ বিদ্যালয় বন্ধ করে দিয়েছে তালেবান সরকার। তাদের ভাষ্য- ছাত্রীদের পোশাকবিধি নির্ধারণ না করা পর্যন্ত স্কুলগুলো বন্ধ থাকবে।