চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঢাকায় প্রথমবার ইয়ুথ বাংলা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব

১০ ডিসেম্বর থেকে ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে এই চলচ্চিত্র উৎসব

দেশীয় সাংস্কৃতিক সংগঠন ইয়ুথ বাংলা কালচারাল ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে প্রথমবারের মতো বসতে যাচ্ছে ‘ইয়ুথ বাংলা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব’। স্বল্পদৈর্ঘ্য ও পূর্ণদৈঘ্য মিলিয়ে দেশ বিদেশের ৬০ টি চলচ্চিত্র এ উৎসবে প্রদর্শিত হবে।

মঙ্গলবার দুপুরে বাংলাদেশ শুটিং স্পোর্ট ফেডোরেশনে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, রাজধানীর উত্তরা ইন্টারন্যাশনাল হোপ স্কুল থিয়েটার হলে (রোড ৬, প্লট ৭, গেইট ৪, সেক্টর ৪) এই উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। ১০ ডিসেম্বর থেকে ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে এই চলচ্চিত্র উৎসব। প্রতিদিন বেলা ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত বিনামূল্যে চলচ্চিত্র উপভোগ করতে পারবেন দর্শক।

ইয়ুথ বাংলা চলচ্চিত্র উৎসব পরিচালনা করছেন নির্মাতা ও অভিনেতা গাজী রাকায়েত। তিনি বলেন, এই আয়োজনের মাধ্যমে পৃথিবীতে আরেকটি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সংযোজন হতে যাচ্ছে। একটি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব আয়োজন করতে গেলে কমপক্ষে ছয়মাস সময় লাগে। কিন্তু দেড়মাসের মধ্যে আয়োজনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ দিতে চাই।

এই চলচ্চিত্র উৎসবে ৩৬টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। এরমধ্যে ১৪টি পূর্ণদৈর্ঘ্য ও ২২ টি স্বল্পদৈর্ঘ্য রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

প্রতিযোগিতা বিভাগে দেশ ও দেশের বাইরে মিলিয়ে পাঁচটি চলচ্চিত্র নির্বাচিত করা হবে। যেসব দেশের চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে সেই দেশগুলো হচ্ছে ইন্ডিয়া, ইরান, জার্মানি, আর্জেন্টিনা, জার্মান, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান, মালয়েশিয়া, নেপাল, নেদারল্যান্ডের চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে।

১০ ডিসেম্বর উৎসবটি উদ্বোধন হবে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র ‘হাসিনা: এ ডটার’স টেল’ দিয়ে। এছাড়া তারেক মাসুদের ‘মুক্তির গান’, মোরশেদুল ইসলামের ‘আমার বন্ধু রাশেদ’, গাজী রাকায়ের ‘গোর’ সিনেমা প্রদর্শন হবে।

১৭ ডিসেম্বর এসব চলচ্চিত্রের মধ্যে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র, পরিচালক, অভিনেতা অভিনেত্রীসহ মোট ছয়টি বিভাগে পুরষ্কার বিতরণ করা হবে। প্রদান করা হবে আজীবন সম্মাননাও।

এই উৎসবটি আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের পরিচিতি এনে দেবে বলে মনে করেন গাজী রাকায়েত। তিনি বলেন, প্রথমবার শুরু হলো। আগামীতে এই উৎসবটি দক্ষিণ এশিয়ার সেরা চলচ্চিত্র উৎসবের মর্যাদায় নিয়ে যেতে চাই। বিশ্বের কাছে বাংলাদেশকে চেনাতে হলে এই ধরনের আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের কোনো বিকল্প নেই।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন ইয়ুথ বাংলা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের প্রধান পৃষ্ঠপোষক সীমা হাদিম, চিত্রনায়িকা নিপুণ, অভিনেত্রী দিলারা জামান, শর্মীলি আহমেদ, আবৃত্তিকার শিমুল মুস্তফা, এস আই টুটুল, মুনা চৌধুরীসহ অনেকে।

বিজ্ঞাপন