চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘যাদের জন্য ছবিটা বানিয়েছি তারা দেখছে, আর কিছু চাই না’

প্রেক্ষাগৃহে প্রশংসিত ‘পদ্মাপুরান’

ঢাকা সহ দেশের মোট তিনটি জেলায় মুক্তি পেয়েছে তরুণ নির্মাতা রাশিদ পলাশ পরিচালিত প্রথম সিনেমা ‘পদ্মাপুরান’। মুক্তির দিন থেকেই সিনেমাটি দেখে প্রশংসা করছেন সাধারণ দর্শক। শুধু ঢাকাতেই নয়, প্রশংসা পাচ্ছে নারায়ণগঞ্জ ও চট্টগ্রাম থেকেও।

মুক্তির প্রথম দিন রাজধানীর বসুন্ধরা স্টার সিনেপ্লেক্স দুটি শো পুরোপুরি ছিলো হাউজফুল। অনেকে টিকেট না পেয়ে অন্য ছবি দেখেছেন বলেও জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। মিরপুরে সনি সিনেপ্লেক্সেও ছবিটি দেখতে প্রচুর দর্শক ছিলো শুক্রবার।

প্রথম দিনের মতো দ্বিতীয় দিনেও ‘পদ্মাপুরান’ দেখতে বহু দর্শক সনি সিনেপ্লেক্সে এসেছেন বলে জানিয়েছেন নির্মাতা রাশিদ পলাশ। তিনি নিজেও এদিন দুপুরে সনি সিনেপ্লেক্স প্রদর্শনে গিয়েছিলেন।

তিনি জানান, শনিবার দুপুর থেকেইতো ঝুম বৃষ্টি। অথচ সনি সিনেপ্লেক্স এ দর্শক সংখ্যা দেখে আমি অবাক। এতো বৃষ্টির মধ্যেও সিনেমাটি দেখতে বহু দর্শক এসেছেন। এদের প্রতি আমার কৃতজ্ঞতার শেষ নেই।

ঢাকার অন্যান্য প্রেক্ষাগৃহের মতো নারায়ণগঞ্জের সিনেস্কোপ, চট্টগ্রামের সুগন্ধা সিনেমা হল থেকেও দর্শকের খুব ভালো রেসপন্স পাচ্ছেন বলে জানান রাশিদ পলাশ।

বিজ্ঞাপন

শুধু প্রশংসায় নয়, সমালোচনা নিতেও প্রস্তুত আছেন নির্মাতা। তবে এই সময়ের ‘পেইড রিভিউকারী’দের নিয়ে কিছুটা বিরক্তি প্রকাশ করেন এই তরুণ নির্মাতা জানালেন, পেইড রিভিউ দিয়ে সিনেমা হিট করানোর কোনো যৌক্তিকতা দেখি না। যাদের জন্য আমি ছবিটা বানিয়েছি তারা দেখছে। দেখে তারা তাদের ভালো মন্দ অনুভূতির কথা জানাচ্ছেন। আমার আর কিছু চাই না।

নির্মাতার বাড়ি চাপাইনবাবগঞ্জে। নিজের শহরের মানুষদের ‘পদ্মাপুরান’ থেকে কেন বঞ্চিত করলেন? এমন প্রশ্নে নির্মাতা বলেন, চাপাইনবাবগঞ্জে এই মুহূর্তে কোনো সিনেমা হল নেই। বিকল্প ব্যবস্থায় পরবর্তীতে সবাইকে সিনেমাটি দেখাবো।

সিনেমাটি নিয়ে এরআগে নির্মাতা রাশিদ পলাশ বলেন, ‘আমরা নদী পাড়ের মানুষের জীবনের একটা গল্প বলতে চেয়েছি এই ছবিতে। যেটা একেবারেই আমাদের গল্প। পদ্মার পাড়ের মানুষের গল্প।’

‘পদ্মাপুরান’ এর শো টাইম

‘পদ্মাপুরান’-এর বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সাদিয়া মাহি, প্রসূন আজাদ, শম্পা রেজা, জয়রাজ, সুমিত সেনগুপ্ত, কায়েস চৌধুরী, সূচনা শিকদার, রেশমী, হেদায়েত নান্নু, আশরাফুল আশিষ, সাদিয়া তানজিন প্রমুখ।

নির্মাতা রাশিদ পলাশের হাতে রয়েছে ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটে নির্মিতব্য সিনেমা ‘প্রীতিলতা’। যার এখন পর্যন্ত ৩৫ ভাগ দৃশ্যধারণ শেষ। শিগগির ছবির বাকি অংশের শুটিং হবে বলে জানান নির্মাতা।

বিজ্ঞাপন