চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Group

এবার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কেনার ঘোষণা ইলন মাস্ক’র

Nagod
Bkash July

‘অধিক সন্ন্যাসীতে গাজন নষ্ট’-প্রবাদটি বর্তমান সময়ে ধুকতে থাকা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সাথে হুবহু মিলে যায়। ২০০৩ সালে রেড ডেভিলদের মসনদে বসেন মার্কিন ব্যবসায়ী গ্লেজার। এরপর ২০১৪ সালে তার মৃত্যুর পরপরই উত্তরাধিকারসূত্রে ক্লাবটির মালিকানা বুঝে পান গ্লেজারের ৬ ছেলে। তার অধীনে ক্রমেই জৌলুস হারাতে থাকে ক্লাবটি। সমর্থকদের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের স্বপ্ন দেখিয়ে খেলতে হচ্ছে সুপার লিগে। এ নিয়ে ভক্তদের রোষানলে পুড়তে হচ্ছে মালিক পক্ষকে। নতুন খবর,  ক্লাবটিকে সুদিনে ফেরাতে এগিয়ে এসেছেন টেসলা ও স্পেসএক্স সিইও ইলন মাস্ক। তিনি টুইটারে ঘোষণা দিয়েছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কেনার।

সবশেষ মৌসুমে ৬ নম্বরে থেকে কোনো রকমে লিগ শেষ করেছে ইউনাইটেড। র‌্যাঙ্গনিককে সরিয়ে বসানো হয়েছে মাষ্টার এরিক টেন হ্যাগকে। কোনো কিছুতেই যেন দৃশ্যপটে ভিন্নতা নেই। চলতি মৌসুমের শুরু থেকেই খাবি খাচ্ছে তার দল। ব্রেন্টফোর্ডের বিপক্ষে ৪-০ গোলে অপমানজনক হারসহ টানা দুই হার দেখেছে রেড ডেভিল সমর্থকরা। অবস্থান টেবিলের তলানিতে যা ক্লাবটির গত ৩০ বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ঘটল। হজম করতে পারছে না সমর্থকরা। দাবী উঠেছে গ্লেজার পরিবারকে হটানোর।

সাউথ আফ্রিকান ধনকুবের সম্প্রতি টেসলার শেয়ার বিক্রি করছেন ৭ বিলিয়ন ডলারে। টুইটার কেনার আগ্রহ দেখিয়েছিলেন। টুইটারের মালিকানা এখনো বুজে না পেলেও কিনতে চেয়ে মামলায় জড়িয়েছেন। আমেরিকায় তার রাজনৈতিক সমর্থন নিয়ে মতভেদ রয়েছে। টুইটারে পরিষ্কার করে জানিয়েছেন প্রধান দুটি রাজনৈতিক দলকেই সমানভাবে সমর্থন করেন তিনি। পরের টুইটে ভক্তরে জানান ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কেনার কথা।

‘আমি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কিনতে যাচ্ছি। সেখানে আপনাদের স্বাগতম।’

মাস্কের এমন টুইটের পরও এ বিষয়ে ক্লাব বা এর মালিকদের পক্ষ থেকে কোনো তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তবে বর্তমান মালিকানা কাঠামোতে আস্থা নেই সমর্থকদের। এরআগেও সমর্থকদের একটা অংশ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কিনে নিতে টুইটারে মাস্ককে অনুরোধ জানিয়েছিলেন। নতুন করে মাস্কের টুইটের ফল-সূতিতে সমর্থন দিচ্ছেন সমর্থকরা।

BSH
Bellow Post-Green View