চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অস্ট্রেলিয়ায় জ্বালানী ঘাটতি কমাতে নাগরিকদের লাইট বন্ধ রাখার পরামর্শ

জ্বালানী ঘাটতির কারণে অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস প্রদেশের অধিবাসীদের ঘরের লাইট বন্ধ রাখতে বলেছেন অস্ট্রেলিয়ার জ্বালানি মন্ত্রী ক্রিস বোয়েন।

তিনি বলেন, যাদের সুযোগ রয়েছে প্রতি সন্ধ্যায় তাদের দুই ঘণ্টা বিদ্যুৎ ব্যবহার করা উচিত নয়। এভাবে ব্ল্যাকআউট এড়ানো যেতে পারে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন তিনি।

Reneta June

দাম বৃদ্ধির কারণে অস্ট্রেলিয়ার প্রধান পাইকারি বিদ্যুতের বাজার বন্ধ হওয়ার পরে এমন নির্দেশনা এসেছে বলে জানায় বিবিসি।

বিজ্ঞাপন

ক্যানবেরায় একটি টেলিভিশন মিডিয়া কনফারেন্সের সময় তিনি বলেন, যদি আপনার কাছে নির্দিষ্ট আইটেম চালানোর বিষয়ে একটি পছন্দ থাকে তবে সেগুলি সন্ধ্যা ৬ থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত জ্বালাবেন না।

অস্ট্রেলিয়া বিশ্বের অন্যতম কয়লা এবং তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস রপ্তানিকারক দেশ। কিন্তু গত মাস থেকে বিদ্যুতের সংকটে ভুগছে। দেশের তিন-চতুর্থাংশ বিদ্যুৎ এখনও কয়লা ব্যবহার করে উৎপাদিত হয়। এটি পুনঃনির্মাণে বিনিয়োগ করে নির্গমন কমাতে যথেষ্ট কাজ করেনি বলে দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ করা হচ্ছে।

বিবিসি জানায়, সাম্প্রতিক সময়ে অস্ট্রেলিয়ায় কয়লা সরবরাহে ব্যাঘাত, বেশ কয়েকটি কয়লা চালিত বিদ্যুৎ কেন্দ্রে বিভ্রাট এবং বৈশ্বিক জ্বালানি শক্তির দাম বৃদ্ধির প্রভাব পড়ছে বলে।

ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের কারণে বিশ্বব্যাপী কয়লা ও গ্যাসের দাম বেড়ে যাওয়ায় কিছু বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী তাদের খরচ বেড়েছে।

কোভিড -১৯ বিধিনিষেধ শিথিল করার পরে অস্ট্রেলিয়ার অর্থনীতি খোলার সাথে সাথে শক্তির চাহিদা বেড়েছে।