চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

হাসছেন ক্লপ, গানার-ল্যাম্পার্ডের মুখ ফ্যাকাসে

ইউরোপা লিগের ম্যাচে সহজে জিতলেও প্রিমিয়ার লিগে আবারও চাপে পড়ল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ওয়েস্টহ্যাম ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে অ্যাওয়ে ম্যাচে ০-২ গোলে হারল ম্যানইউ। ওলে গানারের উপর চাপ বাড়িয়ে দিল ম্যানুয়েল পেল্লেগ্রিনির দল। ওয়েস্টহ্যামের হয়ে গোল দুটি করেন আন্দ্রিই ইয়ার্মোলেঙ্কো এবং অ্যারন ক্রেসওয়েল।

গোদের উপর বিষফোঁড়ার মতো হয়ে এসেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের এক নম্বর ফরোয়ার্ড মার্কাস র‍্যাশফোর্ডের চোট। দ্বিতীয়ার্ধে তার পায়ের পেশিতে টান ধরে। দলের ডাক্তার মাঠে গেলেও হতাশায় মাথা নাড়াতে দেখা যায় তাকে। শেষ পর্যন্ত তার পরিবর্তে জেসে লিনগার্ডকে নামাতে হয় ওলে গানারকে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

খারাপ অবস্থা ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ডেরও। তার চেলসি আরও একবার হারল ঘরের মাঠে। তাদের হারায় লিভারপুল। ট্রেন্ট অ্যালেক্সান্ডার আর্নল্ড লিভারপুলকে এগিয়ে দিয়েছিলেন। বিরতির আগেই ২-০ করেছিলেন রবের্তো ফিরমিনো। এনগোলো কন্তে বিরতির পর ১-২ করলেও সমতায় ফিরতে পারেনি চেলসি।

আর্সেনাল আবার ঘরের মাঠে পিছিয়ে পড়েছিল অ্যাস্টন ভিলার বিরুদ্ধে। এমনকি বিরতির আগেই মেইটল্যান্ড নাইলস লাল কার্ড দেখায় আর্সেনাল ১০ জন হয়ে যায়। শেষ পর্যন্ত ৩-২ জেতে গানাররা। ভিলার হয়ে গোল করেছিলেন ম্যাকগিন ও ওয়েসলি। আর্সেনালের হয়ে পেনাল্টি থেকে গোল করেন নিকোলাস পেপে। বাকি দুটি গোল ক্যালাম চেম্বার্স ও পিয়ের এমেরিক অবামেয়াংয়ের।

ছয় ম্যাচে মাত্র দুটিতে জিতে আট পয়েন্ট ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। তারা প্রিমিয়ার লিগের আট নম্বরে। চেলসিরও ছয় ম্যাচে আট পয়েন্ট। তবে তারা আছে ১১তম স্থানে। লিভারপুল ছয় ম্যাচে সবকটি জিতে শীর্ষে। আর্সেনাল ছয় ম্যাচে ১১ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে।

Bellow Post-Green View