চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সাহো: ৩৫০ কোটি টাকার অপচয়!

মুক্তির প্রথম দিনেই বক্স অফিসে ১০০ কোটি রুপি আয় করলেও সমালোচকরা ছবিটি দেখে বলছেন, অর্থের অপচয়!

মুক্তির আগে থেকেই দর্শকদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিল দক্ষিণী সুপারস্টার প্রভাস অভিনীত ছবি ‘সাহো’। একেতো ‘বাহুবলী’র পর প্রভাসের নতুন ছবি, তার উপর ছবির বাজেট ৩৫০ কোটি রুপি!

তামিল, তেলেগু, হিন্দি ও মালায়লাম ভাষায় মুক্তি প্রাপ্ত ‘সাহো’ মুক্তির প্রথম দিনে শুধু হিন্দি ভাষাতেই আয় করেছে ২৪কোটি রুপি এবং বাকি সব ভাষার আয় করেছে প্রায় ৭৫-৮০কোটি রুপি! অর্থাৎ সবমিলিয়ে এর আয় ছাড়িয়ে ১০০কোটি রুপি!

বিজ্ঞাপন

তবুও সমালোচকরা বলছেন, ‘সাহো’ ছবিটি অর্থের অপচয়! ছবিটি দেখার পর থেকেই দর্শক ও সমালোচকদের পক্ষ থেকে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া ই বেশী পাওয়া যাচ্ছে! ট্রেড অ্যানালিস্টদের ধারণা, আগামী ৭দিনের মধ্যে ছবিটির দুর্বল কাহিনী ও বাজে চিত্রনাট্যের কারণে এর আয় পড়ে যাবে।

এমনকি ছবিটি দেখা মাত্রই বলিউডের প্রখ্যাত বাণিজ্য বিশ্লেষক তারান আদর্শ এক কথায় মন্তব্য করেন, ‘অসহ্য’! তিনি ছবিটির রেটিং দিয়েছেন ১/২! এছাড়াও সিনেমাটিকে মেধা, বড় অংকের অর্থলগ্নি ও সম্ভাবনার ‘বিশাল অপচয়’ বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

তার দৃষ্টিতে সিনেমাটির কাহিনী খুবই দুর্বল। চিত্রনাট্য দর্শককে যথেষ্ট বিভ্রান্ত করবে বলেও মন্তব্য তার। শুধু তাই নয়, পরিচালনাও হয়েছে একদম অপেশাদারী!

তারন আদর্শের কথার মিল পাওয়া যাবে ভারতীয় শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত ‘সাহো’র রিভিউ দেখেও। বেশীর ভাগ রিভিউতে রেটিংয়ে সাহোকে দেয়া হয়েছে পাঁচের মধ্যে দুই! সমালোচনা করা হয়েছে ছবির পুরো নির্মাণ নিয়েই।

ভারতের ৫-৬হাজার প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে ‘সাহো’। ছবিটি শুধুমাত্র হিন্দিতেই মুক্তি পেয়েছে প্রায় সাড়ে তিন হাজার প্রেক্ষাগৃহে। সেই সাথে বিশ্বের অন্যান্য দেশের এক থেকে দুই হাজার প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে ছবিটি।

প্রথমবারের মত এই ছবিটিতে একসাথে অভিনয় করেছেন দক্ষিনী সুপারস্টার ‘বাহুবলী’ খ্যাত প্রভাস ও বলিউড অভিনেত্রী শ্রদ্ধা কাপুর। ছবিটি নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য এলেও ছবিটিতে এই দুই তারকা তাদের অভিনয়ের জাদু ঠিকই দেখিয়েছে।

ছবিতে আরো ছিলেন  চাঙ্কি পান্ডে, নীল নিতিন মুকেশ, মহেশ মাঞ্জরেকার,মন্দিরা বেদি সহ আরো এক ঝাঁক তারকা।