চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সম্প্রীতি ও শান্তির বার্তা নিয়ে ৩০ নভেম্বর বাংলাদেশে আসছেন পোপ

Nagod
Bkash July

৩০ নভেম্বর বাংলাদেশে আসছেন পোপ ফ্রান্সিস, এর আগে সফর করবেন মিয়ানমার। বাংলাদেশ এবং মিয়ানমার সফরের উদ্দেশ্যে এরইমধ্যে তিনি রোম থেকে রওনা হয়েছেন। সম্প্রীতি ও শান্তির বার্তা নিয়ে দক্ষিণ এশিয়ায় আসছেন পোপ। তিন দিনের বাংলাদেশ সফরে তিনি রাষ্ট্রীয়, সামাজিক ও ধর্মীয় বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন।

Reneta June

বাংলাদেশ এবং মিয়ানমারে ৬ দিনের সফরে রোববার রাতে ইটালির রাজধানী রোম থেকে রওনা হয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস। প্রথমে তিনি যাবেন মিয়ানমারে। সেখান থেকে ৩০ নভেম্বর বিকাল ৩টায় ঢাকা পৌঁছানোর কথা রয়েছে খৃষ্ট ধর্মাবলম্বীদের সর্বোচ্চ ধর্মীয় এই নেতার।

পোপকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুতি নিচ্ছে বাংলাদেশ। সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জানানো হয় প্রস্তুতির  সর্বশেষ। রাজধানীর রমনার আচর্চবিশপ হাউজে বাংলাদেশের সকল বিশপকে সঙ্গে নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে পোপের সফরের বিস্তারিত তুলে ধরেন আর্চবিশপ কার্ডিনাল প্যাট্রিক ডি’রোজারিও।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, খৃষ্ট ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় নেতার বাংলাদেশ সফর সবার জন্য সম্মানের এবং আনন্দের। বাংলাদেশে পোপের আসার পেছনে প্রথম উদ্যোগ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এজন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ।

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, সফরের সময় পোপ বাংলাদেশে সকল ধর্মের সকল মানুষের সৌহার্দ্যপূর্ণ বাস্তব চিত্র প্রত্যক্ষ করবেন। সেসময় সাংবাদিকরা জানতে চান রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে পোপ কোনো ভূমিকা রাখবেন কিনা?

এর জবাবে জানানো হয়, পোপ রোহিঙ্গা শব্দটি ব্যবহার করেছেন। বলেছেন রোহিঙ্গারা আমার ভাই ও বোন। তিনি মিয়ানমারের সেনা প্রধানের সঙ্গে দেখা করবেন বলেও জানানো হয়।

তিন দিনের সফর শেষে ২ ডিসেম্বর বিকেলে ঢাকা থেকে ভ্যাটিক্যান সিটির উদ্দেশে রওনা হবেন পোপ ফ্রান্সিস।

বিস্তারিত দেখুন ভিডিও রিপোর্টে:

BSH
Bellow Post-Green View