চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

লিটনের ‘কনকাশন’ বদলি মিরাজ

টেস্ট ইতিহাসে মাত্র দ্বিতীয় ঘটনা

বাংলাদেশ ইনিংসের ঘোরতর দুঃসময়ে মাথায় আঘাত পেলেন লিটন দাস। ছাড়তে বাধ্য হলেন মাঠও। আর টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাস দেখল দ্বিতীয় কনকাশন বদলি, তথা মাথায় আঘাত জনিত বিকল্প নামানোর ঘটনা। আহত অবসর লিটনের জায়গায় ইডেনে দিবা-রাত্রির টেস্টে ব্যাট করতে নামেন মেহেদী হাসান মিরাজ।

শুক্রবার বাংলাদেশ ইনিংসের ২১তম ওভারের তৃতীয় বলে মোহাম্মদ সামির বাউন্সারে হুক খেলতে গেলে বল সরাসরি লিটনের হেলমেটে আঘাত হানে। তাতে কপালের ডানঅংশ ফুলে যায় তার। ফিজিওর সাথে মাঠেই কিছুক্ষণ সময় কাটিয়ে সেসময় ব্যাটিং চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন ডানহাতি এ ব্যাটসম্যান।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু ২২তম ওভারে যেয়ে অস্বস্তি বোধ করায় আম্পায়ারের কাছে আবেদন করেন আহত অবসরের। তখন লিটনের বিরতি অনুমোদন করার সাথে সাথেই প্রথম সেশনের বিরতিও ঘোষণা করেন মাঠ আম্পায়াররা।

বিজ্ঞাপন

দ্বিতীয় সেশনে টাইগার ব্যাটিং লাইনআপে মেলে চমক, মাঠে নামেন শুরুর একাদশে না থাকা মিরাজ। সপ্তম ব্যাটসম্যান হিসেবে ইবাদত হোসেন আউট হওয়ার পর ব্যাট হাতে নামেন এ স্পিন-অলরাউন্ডার। তিনি লিটনের কনকাশন বদলি। মাথায় আঘাত পাওয়া লিটন এই ইনিংসে আর ব্যাট করতে পারবেন না, সেটা নিশ্চিত হওয়ার পর যে বদলি নামানোর সুযোগ মিলেছে। চলতি বছরই আইসিসি এই বদলির বিষয়টি অনুমোদন করেছে।

কনকাশন বদলি হতে হয় একই ধরনের খেলোয়াড়। লিটন উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান। মিরাজ অলরাউন্ডার। তাই তিনি বোলিং করতে পারবেন না। কেবল ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতে হবে মিরাজকে।

ব্যাটিংয়ে নেমে অবশ্য বিশেষ কিছু করতে পারেননি মিরাজ। ইশান্ত শর্মার বলে শর্ট লেগে চেতেশ্বর পূজারাকে ক্যাচ দিয়ে আউট হয়েছেন ৮ রান করে। তার কিছুপরই বাংলাদেশ অলআউট হয়েছে ১০৬ রানে।

মিরাজ টেস্ট ইতিহাসের দ্বিতীয় কনকাশন বদলি। এর আগে টেস্ট ক্রিকেটের প্রথম কনকাশন বদলি হিসেবে মাঠে নেমেছিলেন মার্নাস লাবুশেন। গত অ্যাশেজে লিডস টেস্টে মাথায় আঘাত পেয়েছিলেন স্টিভেন স্মিথ। তার বদলি হিসেবে নেমেছিলেন লাবুশেন।

Bellow Post-Green View