চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যুক্তরাষ্ট্রে লাখ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন অব্যবহৃত

যুক্তরাষ্ট্রের হাসপাতালগুলোতে এবং অন্যান্য জায়গায় লাখ লাখ ডোজ করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে আছে। ফলে এই মাসের মধ্যেই ২ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন সরবরাহে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের পরিকল্পনা পূরণ নিয়ে সন্দেহ তৈরি হয়েছে।

বুধবার সকাল পর্যন্ত পাওয়া তথ্যে ফাইজার ও বায়োএনটেকের ভ্যাকসিনের মাত্র ১০ লাখ শট বিতরণ করা হয়েছে। যেটা গত সপ্তাহের প্রথম চালানের তিনভাগের একভাগ। আরও সাড়ে ৯০ লাখ ভ্যাকসিন বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন। তবে মডার্নার ভ্যাকসিন বিতরণ শুরু হয়েছে কিনা সে সম্পর্কে কোনো তথ্য দেয়নি সিডিসি।

বিজ্ঞাপন

হাসপাতালগুলো জানিয়েছে গত সোমবার খুব ধীরে করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন বিতরণ শুরু হয়েছে। শুরুতে আগে থেকে ফ্রোজেন করা ডোজ ব্যবহার করা হয় এবং ভ্যাকসিন প্রদানের আগে ও পরে যথাযথ শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করা হয়। কেউ কেউ জানায় প্রথম দিনে মাত্র ১০০ শট ডোজ বিতরণ করা হয়।

বছরের শেষ নাগাদ ২ কোটি জনগণকে টিকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলো ট্রাম্প প্রশাসন। কিন্তু তাতে অর্থ সরবরাহ খুব কম করা হয়। এই নয় দিনে ২০ লাখ মানুষকে করোনাভ্যাকসিন দেওয়ার কথা ছিল।

মডার্না ইনক ভ্যাকসিনের প্রায় ৬০ লাখ ডোজ এই সপ্তাহে বিতরণের কথা ছিল, সঙ্গে ফাইজার ও বায়োএনটেকের আরো ২০ লাখ ডোজ।

বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রের অপারেশন ওয়ার্প স্পিডের প্রধান পরামর্শক ডা. মনসেফ স্লাউই বলেন, ভ্যাকসিন ডোজ সহজলভ্য করার যে প্রতিশ্রুতি আমরা দিয়েছিলাম তা আমরা যতটা ভেবেছিলাম তার থেকে ধীরগতিতে চলছে।

জনসন অ্যান্ড জনসন এবং অ্যাস্ট্র্যাজেনেকার আরও দুটি ভ্যাকসিন অনুমোদন পেতে পারে ফেব্রুয়ারিতে। ১ মার্চের মধ্যে ১০০ মিলিয়ন ফাইজার ও মডার্নার ভ্যাকসিন ডোজ হাতে পেতে চায় যুক্তরাষ্ট্র সরকার।

ন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অব কাউন্টি অ্যান্ড সিটি হেলথ অফিশিয়ালসের গভমেন্ট অ্যান্ড পাবলিক অ্যাফেয়ার্সের প্রধান আদ্রিয়ানে কাসালোট্টি বলেন, অঙ্গরাজ্য ও স্বাস্থ্য বিভাগের সরকারি অর্থ দরকার ডাটা সেন্টার কর্মী নেওয়ার জন্য।

বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের প্রণোদনা প্যাকেজ রেখেছে ভ্যাকসিন বিতরণের জন্য। কিন্তু সেটা বিলম্বিত হচ্ছে। কাসালোট্টি বলেন, তুমি ডিসেম্বরে কাউকে কাজে নিতে এবং প্রশিক্ষণ দিতে পারবে না যদি না তুমি জানো জানুয়ারিতে তাকে বেতন দিতে পারবে কিনা।

যুক্তরাষ্ট্রে এরই মধ্যে এই ভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ১ কোটি ৮০ লাখের বেশি মানুষ। আর প্রাণ হারিয়েছে ৩ লাখ ৩৪ হাজারের বেশি।