চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যুক্তরাষ্ট্রে ‘রাশিয়ান নেটওয়ার্ক’ অপসারণের দাবি ফেসবুক ও টুইটারের

গত ২০১৬ সালে মার্কিন নির্বাচনী প্রচারণায় বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পক্ষে প্রচারণায় হস্তক্ষেপ করার দায়ে অভিযুক্ত একটা ক্ষুদ্র নেটওয়ার্ক অপসারণ করতে সক্ষম হয়েছে বলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জায়ান্ট ফেসবুক ও টুইটার।

দুই সংস্থাই এমন কিছু পেজ ও একাউন্ট বাতিল করেছে বলে দাবি করছে, যা মূলত মার্কিন জনগণের বিতর্ককে লক্ষ্যবস্তু করতে প্রচারণা চালাচ্ছিল, সেই সাথে যুক্তরাজ্য ও মিশরেও তারা রাশিয়ার প্রভাবের জন্য কাজ করে।

বিজ্ঞাপন

ফেসবুক জানায়, এই গ্রুপগুলো রাশিয়ার ইন্টারনেট গবেষণা সংস্থা (আইআরএ) এর সাথে যুক্ত ছিলো, যে সংগঠনটি মূলত রাশান সরকারের খুব কাছের। আর এই সংস্থাটি ২০১৬ সালের মার্কিন নির্বাচনে হস্তক্ষেপের দায়ে অভিযুক্ত।

বিজ্ঞাপন

ফেসবুক বলছে, তারা এর ১৩টি একাউন্ট ও দুটি পেজ অপসারণ করেছে, যার অধিকাংশই ভুয়া নাম ও প্রোফাইল ছবি ব্যবহার করেছে।

বিজ্ঞাপন

টুইটারেরও দাবি, তারাও একই নেটওয়ার্কের ৫টি একাউন্ট স্থগিত করে দিয়েছে।

জব্দ হওয়া প্রচারণার অংশ পেজ ও একাউন্টগুলো ইংরেজি ও আরবি ভাষায় পরিচালিত হয়, তারা অলাভজনক কাজ করে বলে দাবি করেছে।

ফেসবুক এবং টুইটার উভয়ের দাবি, ওই প্রচারণাটি খুব সীমিত সাফল্য অর্জন করেছে।

আইআরএ হলো রাশিয়ার তিনটি সংস্থার মধ্যে একটি, যাদের ১৩ জন ব্যক্তিকে মার্কিন বিচার বিভাগ কর্তৃক ২০১৬ সালে মার্কিন নির্বাচনী প্রচারণায় হস্তক্ষেপ করার দায়ে অভিযুক্ত করা হয়েছে। ডোনাল্ড ট্রাম্পের পক্ষের প্রচারণায় তারা কাজ করেছে। এই সংস্থার মাধ্যমে মার্কিন নির্বাচনে রাশিয়া হস্তক্ষেপ করেছে-এমন অভিযোগ করা হয়। তবে তার কোনো প্রমাণ মেলেনি।

বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেনের প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আসন্ন নির্বাচনের ঠিক দুই মাস আগে এমন সংবাদটি সামনে এলো। আগামী নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হবে মার্কিন নির্বাচন।