চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘ভয় পেয়েছেন’ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, দাবি বিজেপি’র

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে গত ৯ দিন সংবাদ সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন না পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তাতেই মমতার বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজেপি প্রচার করছে যে, ‘ভয় পেয়েছে মমতা’।

হিন্দুস্থান টাইমস এ তথ্য জানিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

‘ভয় পেয়েছে মমতা’ (#BhoyPeyechheMamata) হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে ফেসবুক, টুইটারে মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে লাগাতার প্রচার চালিয়ে যাচ্ছে বিজেপি। রাজ্য ও জাতীয় স্তরের একাধিক ছোটো-বড়মাপের নেতা সেই ট্যাগ দিয়ে ইতিমধ্যে টুইট শুরু করেছেন। ফেসবুকেও সেই ট্যাগ ব্যবহার করছেন।

বিজ্ঞাপন

করোনা পরিস্থিতিতে একটা সময় প্রতিদিন সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিতি থাকতেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। কিন্তু গত ৩০ এপ্রিল থেকে সংবাদ সম্মেলনে আসছেন না মমতা। তার বদলে মুখ্যসচিব বা স্বরাষ্ট্র সচিব উপস্থিত থাকছেন।

বিজেপি শিবিরের বক্তব্য, কেন্দ্রের চাপে রাজ্যের করোনা পরিস্থিতির আসল রূপ প্রকাশ পেয়েছে। একইসঙ্গে রাজ্যের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ বৃদ্ধি পাওয়ায় মমতা আমলাদের ঠেলে দিয়ে নিজের মুখ বাঁচাচ্ছেন।

প্রশ্ন তুলেছেন বিজেপির জাতীয় আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য। তার প্রশ্নের পাল্টা জবাব অবশ্য দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। রাজ্যসভার সাংসদ তথা তৃণমূলের জাতীয় মুখপাত্র ডেরেক ও’ব্রায়ান বলেছেন, ‘আমরা দীর্ঘ সংবাদ সম্মেলন করি ও সব প্রশ্ন গ্রহণ করি। যে কোনও সংকটের মুহূর্তে আমাদের মুখ্যমন্ত্রী সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন। কিন্তু ২০১৪ সালের ক্ষমতায় আসার পর থেকে প্রধানমন্ত্রী সাংবাদিক বৈঠক থেকেও একটাও প্রশ্ন নেননি।’ বরং বিজেপির বিরুদ্ধে ভোটের রাজনীতির অভিযোগ তোলেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনের পাশাপাশি বিভিন্ন বিষয়ে রাজ্যের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে বিজেপি। শনিবার এক টুইটে বিজেপির জাতীয় যুগ্ম সাধারণ সচিব (সাংগঠনিক) শিবশংকর বলেন, পিপিই কিটে অসামঞ্জস্যতা, মৃতের সংখ্যা লুকানো, রেশন দুর্নীতি – শুরু থেকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশাসন মানুষকে ভুল পথে চালিত করেছে। ধৈর্য্য ধরুন। মানুষ জবাব দেবে। ভয় পেয়েছে মমতা।’ তিনি ছাড়াও মুকুল রায়, অর্জুন সিং, কৈলাস বিজয়বর্গীয় রাজ্যের বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হয়েছেন।