চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ব্যাচেলরদের ঘরে নির্মাতা জীবনের এন্ট্রি!

ব্যাচেলরদের ঘরে একে একে বাড়তে শুরু করেছে অতিথির সংখ্যা! সম্প্রতি ‘বোরহান ভাই’ নাম নিয়ে এন্ট্রি নিলেন নির্মাতা শরাফ আহমেদ জীবন! 

কাজল আরেফিন অমির পরিচালনায় ‘ব্যাচলর পয়েন্ট- সিজন থ্রি’তে এন্ট্রি নিয়েছেন শরাফ আহমেদ জীবন। ইতোমধ্যে তার অভিনীত কয়েক পর্ব প্রচারের পর বেশ ভালো সাড়া পড়েছে। নাটকটির নিয়মিত দর্শকরা বলছেন, ‘বোরহান ভাই’ চরিত্রটি ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’-এ নতুন মাত্রা যোগ করেছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

শরাফ আহমেদ জীবন মূলত নির্মাতা। মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘ছবিয়াল’ টিমের অন্যতম সদস্য তিনি। ‘চৌধুরী সাহেবের ফ্রি অফার’সহ একাধিক দর্শকপ্রিয় নাটকের স্রষ্টা শরাফ আহমেদ জীবন। তবে তিনি বেশিরভাগ সময় বিজ্ঞাপন নির্মাণ করেন। নির্মাণের পাশাপাশি বিজ্ঞাপন চিত্রেও তাকে দেখা যায়। কালেভদ্রে নাটকে অভিনয় করে জমিয়ে তুলতে যেন তার জুড়ি নেই!

এর আগে শরাফ আহমেদ জীবন দীর্ঘ সিরিয়ালে অভিনয় করেননি। বললেন, পরিচিতরা ডাকলে, মজার কিছু থাকলে ছোটখাটো চরিত্রে কাজ করি। সিরিয়ালে কাজ করা হয়নি। ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’-এ যুক্ত হওয়া প্রসঙ্গে জীবন বললেন, অমির সঙ্গে পরিচয় আগে থেকেই। ইফতেখার ফাহমীর সহকারী থাকাকালীন তাকে চিনি। সম্পর্কটা বড়ভাই-ছোটভাইয়ের মতো।

জীবন বলেন, ‘চ্যাটিং আলাপে অমি জানায় যে, আমার জন্য একটা চরিত্র নিয়ে চিন্তা করছে। সম্মতি দেই। কিছুদিন পর অমি বলে, চরিত্রটি তৈরি। মনে করেছিলাম হয়তো সিঙ্গেল নাটকের জন্য আমার জন্য ছোটখাটো চরিত্র। পরে পলাশ ফোন করে জানায়, ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’-এর জন্য আমার চরিত্র বানিয়েছে অমি। আমার নিজ জেলা ময়মনসিংহ, ওই এলাকার ভাষায় চরিত্রটি করতে হবে।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু তখনও ভেবেছিলাম ছোট চরিত্র। পরে প্রথমদিন শুটিংয়ে কিছুটা নার্ভাসনেস কাজ করছিল। কারণ, দীর্ঘদিন মারজুক ভাই, মিশু সাব্বির, চাষি ভাই, পলাশ তারা সিরিয়ালটি করে খাপ খাইয়ে নিয়েছে। ধীরে ধীরে শুটিংয়ে বুঝলাম আমার এ চরিত্রটি দীর্ঘ হচ্ছে। তিনি বলেন, অমিকে বারবার বলেছিলেন এমন হিট সিরিয়ালে আমাকে কেন নেয়া হচ্ছে? সে বারবার বলেছে ভাই আপনার এসব বোঝার দরকার নাই। তিনটি এপিসোড প্রচারের পর মানুষের কাছে বিভিন্নভাবে সাড়া পাচ্ছি।

পরিচালককে লজ্জা মুখে নিয়ে জিজ্ঞেস করলাম আমি কী তোমাদের মান রাখতে পেরেছি! অমি আমাকে বলে, ‘বোরহান ভাই ইজ অন ফায়ার’। অনেকেই ফেসবুকে বার্তা দিচ্ছেন, ভাই আপনি এতদিন কোথায় ছিলেন? ফেসবুক খুললেই ইনবক্সে ভরা থাকে। এতে করে বুঝলাম বোরহান ভাইকে মানুষ ভালোভাবে নিচ্ছে। এ নাটকের বিভিন্ন ক্লিপস আমি ফেসবুকে পেতাম। দেখে মজা লাগতো। তবে আমার পরিবারের সদস্যরা নিয়মিত ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ দেখে। ওরা এটা দেখে খুব মজা পায়।- বলছিলেন শরাফ আহমেদ জীবন।

শুরুতে ‘বোরহান ভাই’ চরিত্র নিয়ে সেভাবে কাউকে খুঁজে পাচ্ছিলেন না নির্মাতা কাজল আরেফিন অমি। চ্যানেল আই অনলাইনকে তিনি বলেন, ভিলেন বা হিরো কোনো চরিত্রে কাজ করেননি এমন কাউকে চাচ্ছিলাম এবং যাকে খুঁজছিলাম সে যেন অভিনয় জিনিসটা বোঝে। এ চরিত্র নিয়ে কেউ যেন আন্দাজ করতে না পারে এটাও মাথায় ছিল। জীবন ভাই পরিচালনার পাশাপাশি ব্রিলিয়ান্ট অভিনেতা। সবকিছু বিবেচনা করেই তাকে নেয়া। আগামি পর্বগুলোতে তার চরিত্র প্রভাব ফেলবে ও জমে উঠবে।

অমি বলেন, ২০১০ সালে জীবন ভাইয়ের সহকারী হিসেবে কাজ করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু হয়নি। তখন তিনি আমাকে কিছু পরামর্শ দিয়েছিলেন। পরে ইফতেখার ফাহমী ভাইয়ের সঙ্গে কাজ করেছি। তখন থেকে জীবন ভাইয়ের প্রতি আমার সফটকর্নার ছিল। ১০ বছর পর সেই জীবন ভাই আমার নির্দেশনায় কাজ করছেন এটা আমার জন্য একটি অ্যাচিভমেন্ট বলে মনে করি। পাশাপাশি অভিনয় করার সময় জীবন ভাইয়ের দিকে তাকালে বুঝতে পারি উনিও আমার নির্দেশনা খুব উপভোগ করেন।

মোশন রকের ব্যানারে নির্মিত ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ বৃহস্পতিবার থেকে শনিবার সপ্তাহে তিনদিন প্রচার হচ্ছে ধ্রুব টিভির ইউটিউবে। সিজন থ্রি-তে অভিনয় করছেন মারজুক রাসেল, চাষি আলম, মিশু সাব্বির, জিয়াউল হক পলাশ, সাবিলা নূর, মনিরা মিঠু, আবদুল্লাহ রানা, মুসাফির শোয়েব, সানজানা সরকার রিয়া, শিমুল শর্মা, সুমন পাটোয়ারী, শরাফ আহমেদ জীবন ও পাভেল।