চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিবিজড়িত জায়গাগুলোতে বলিউডের চিত্রনাট্যকার

বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিবিজড়িত জায়গাগুলোতে সুভাষচন্দ্র বসুর দুই চিত্রনাট্যর…

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মজীবনী নিয়ে নির্মিতব্য ভারত-বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনার ছবিটির কাজ বেশ দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। এরইমধ্যে ছবির চিত্রনাট্য প্রস্তুত করার আগে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিবিজড়িত জায়গাগুলো ঘুরে ঘুরে তথ্য ও গবেষণা করছেন বলিউডের দুই বিখ্যাত চিত্রনাট্যকার।

বঙ্গবন্ধুর জীবনীধর্মী চলচ্চিত্রটির চিত্রনাট্য প্রস্তুত পূর্ব পরিকল্পনা মাফিক গত ১৯ মে ঢাকায় এসেছেন বলিউডের আলোচিত ছবি ‘বোস: দ্য ফরগটেন হিরো’র দুই চিত্রনাট্যকার অতুল তিওয়ারি ও শামা জায়েদি। খবরটি চ্যানেল আই অনলাইনকে নিশ্চিত করেছেন তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আজহারুল হক।

বিজ্ঞাপন

সোমবার দুপুরে তথ্য মন্ত্রণালয়ের এই সচিব জানান, পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ি মুম্বাই থেকে বলিউডের দুজন চিত্রনাট্যকার এসেছেন, তারা বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিবিজড়িত জায়গাগুলোতে যাচ্ছেন। সেই সময়ে বঙ্গবন্ধু সংশ্লিষ্ট যারাই আছেন, তাদের কাছেও যাচ্ছেন চিত্রনাট্যকাররা। তারা স্বাধীনভাবে ঘুরে ঘুরে বঙ্গবন্ধুর উপর তথ্য সংগ্রহ করছেন। আর এসব কাজে তাদের সহযোগিতা করছেন তথ্য মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব প্রতাব চন্দ্র।

তথ্যমন্ত্রণালয়ের এই সচিব আরো জানান, চিত্রনাট্য তৈরি করতে বর্তমানে ঢাকায় আছেন ভারতীয় দুই চিত্রনাট্যকার। আগামি ২ জুন পর্যন্ত তারা বাংলাদেশে থাকবেন।

আগামি ডিসেম্বরের মধ্যে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে নির্মিতব্য চলচ্চিত্রটির শুটিং শুরু হওয়ার কথা জানালেও বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে কে অভিনয় করছেন, এ বিষয়ে কিছু জানেন না আজহারুল হক। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে কে অভিনয় করবেন এটা খুঁজে বের করবেন পরিচালক নিজেই। ভারত থেকে যারা এসেছেন, তারা শুধু চিত্রনাট্যের কাজেই এসেছেন।

চলতি মাসের ৭ তারিখে দিল্লীতে বাংলাদেশ-ভারত কর্মকর্তা পর্যায়ের এক সভায় বঙ্গবন্ধুর উপর নির্মিতব্য ছবিটি নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভীর নেতৃত্বে বৈঠকে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলে ছিলেন ভারতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী ও তথ্য সচিব আব্দুল মালেক এবং ভারতের পক্ষে বৈঠকে নেতৃত্ব দেন তথ্য ও সম্প্রচার সচিব অমিত খারে।

বৈঠক শেষে জানানো হয়, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে শ্যাম বেনেগালের পরিচালনায় নির্মিতব্য চলচ্চিত্রটির চিত্রনাট্য লিখবেন অতুল তেওয়ারি। আর এই কাজে তথ্য ও গবেষণায় সহযোগিতা করবেন বাংলাদেশের পিপলু খান।

সেই বেঠকে আরো জানানো হয়, বঙ্গবন্ধুর জীবন, কর্ম ও সংগ্রামের ওপর ভিত্তি করে ১৮০ মিনিটের চলচ্চিত্রটি ‘মুজিব বর্ষ ২০২০-২১’ শেষ হওয়ার আগেই এই চলচ্চিত্রটি মুক্তি পাবে।

সেসময় শ্যাম বেনেগাল বলেছিলেন, এই চলচ্চিত্রের জন্য বেশিভাগ অভিনেতা-অভিনেত্রী নেয়া হবে বাংলাদেশ থেকে এবং শিগগিরই আমরা অভিনেতা-অভিনেত্রী খোঁজার কাজটি শুরু করে দেব। অবশ্য বঙ্গবন্ধুর মতো মহান নেতার চরিত্রে যিনি অভিনয় করবেন তাকে পছন্দ করা হবে একটি কঠিন কাজ।

তিনি আরো জানান, পান্ডুলিপির আনুসঙ্গিক বিষয় ও পাত্র-পাত্রী নির্বাচনের মতো কাজ হয়ে গেলে শুটিংয়ের জন্য সর্বোচ্চ ৮০ দিন লাগবে। শুটিং পরবর্তী কাজ হবে মুম্বাইয়ে। ইংরেজি সাব-টাইটেলসহ চলচ্চিত্রটি নির্মিত হবে বাংলা ভাষায় এবং পরে অন্যান্য ভাষায় এটি তৈরি করা হবে।

শামা জায়েদি ও অতুল তেওয়ারি দুজনই পরিচালক শ্যাম বেনেগালের ঘনিষ্ঠ। একসঙ্গে বেশকিছু কাজ করেছেন এই দুই চিত্রনাট্যকার। বিশেষ করে নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর উপর নির্মিত বলিউডের আলোচিত ছবি ‘বোস: দ্য ফরগটেন হিরো’র চিত্রনাট্য জীবনী নির্ভর চলচ্চিত্র নির্মাণে ভারতে খ্যাতি এনে দেয়।

এদিকে শামা জায়েদি সত্যজিৎ রায়ের ‘সতরঞ্জ কি খিলাড়ি’-এর সংলাপ লেখা ছাড়াও ‘উমরাও জান’ শ্যাম বেনেগালের ‘আরোহন’, ‘মান্ডি’,  ছবিগুলোর গল্পকার ও চিত্রনাট্যকার হিসেবে বেশ সুনাম অর্জন করেন।

Bellow Post-Green View