চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফুলেল শ্রদ্ধায় প্রিয় প্রাঙ্গণ ছাড়লেন মাহবুবে আলম

মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন

নিজের সুদীর্ঘ সময়ে কর্মস্থল সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি প্রাঙ্গণে জানাজার পর ফুলেল শ্রদ্ধায় সিক্ত হয়েছেন প্রয়াত অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় অনুষ্ঠিত জানাজায় অংশ নেন প্রধান বিচারপতি, মন্ত্রী, সুপ্রিম কোর্টের উভয় বিভাগের বিচারপতি, আইনজীবী, স্বজন, শুভাকাঙ্ক্ষীসহ বিভিন্ন শ্রেণির-পেশার মানুষ।

বিজ্ঞাপন

জানাজা অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল। তার আগে সমবেতদের উদ্দেশে কথা বলেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিন ও অ্যাটর্নি জেনারেলের ছেলে সুমন মাহবুব।

 

জানাজার পর রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে মাহবুবে আলমের কফিনে ফুল দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা জানানো হয়। এরপর প্রধান বিচারপতি, আইনমন্ত্রী, প্রাণী সম্পদ মন্ত্রী, রেলমন্ত্রী, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস, পুলিশের মহাপরিদর্শক, ডিএমপি কমিশনারসহ বিশিষ্ট্য ব্যক্তি ও আইনজীবীরা তার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

বিজ্ঞাপন

এ ছাড়াও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি, বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ ও ল’ রিপোর্টার্স ফোরামসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

পরে অ্যাটর্নি জেনারেলের মরদেহ মিরপুরের বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন হয়।

এদিকে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে সোমবার সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট ও আপিল বিভাগের বিচারকাজ পরিচালনা হবে না বলে ভার্চুয়াল আপিল বেঞ্চে যুক্ত হয়ে জানান প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অ্যাটর্নি জেনারেল রোববার সন্ধ্যা ৭টা ২৫ মিনিটে মারা যান। মৃত্যুকালে মাহবুবে আলমের বয়স হয়েছিল ৭১ বছর। তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়েকে রেখে গেছেন।

গত ৪ সেপ্টেম্বর সকালে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের জ্বর আসায় চিকিৎসকের পরামর্শে তাকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়।

সেখানে পরীক্ষার পর তার কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়। পরবর্তীতে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে অ্যাটর্নি জেনারেলকে সিএমএইচের আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি রোববার মারা যান।