চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

জয় পেতে সোশ্যাল মিডিয়াকে ব্যবহার করতে বললেন জব্বার

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করতে সরকারের উন্নয়নের তথ্য বহুল চিত্র সোশ্যাল মিডিয়ায় তুলে ধরার আহ্বান জানিয়েছেন সাবেক তথ্য ও প্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তফা জব্বার।

তিনি বলেন: দেশে ১০ কোটি ভোটার থাকলে ৪ কোটি ভোটারের জনপ্রিয় জায়গা হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া। নির্বাচন উপলক্ষে প্রথাগত প্রচার-প্রচারণা চলবে। পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতে সরকারের ১০ বছরের উন্নয়ন, অগ্রগতি ও রূপান্তরকে তুলে ধরতে হবে।

শনিবার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটশন, বাংলাদেশ (আইইবি) মিলনায়তনে ‘ডিজিটাল নির্বাচনী ক্যাম্পেইন বিষয়ক কর্মশালায়’ তিনি এ আহ্বান জানান।

মোস্তফা জব্বার বলেন: ইন্টারনেট এখন বিশ্বের সবচেয়ে বড় হাতিয়ার। সামনের দিনগুলো হবে ইন্টারনেট নির্ভর। ইন্টারনেট কাজে লাগিয়ে নির্বাচনী আসনগুলোতে যারা সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে তাদের নিয়ে টিম তৈরি করে নৌকার পক্ষে প্রচারণা চালাতে হবে।

‘‘নির্বাচন উপলক্ষে প্রতিপক্ষ সোশ্যাল মিডিয়াতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সচেতন ভাবে নিষ্ক্রিয় করতে চাইবে। এসব বিষয়েও আমাদের সর্তক থাকতে হবে। আগামী ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত সর্বশক্তি প্রয়োগ করে শেখ হাসিনাকে আবারও প্রধানমন্ত্রী বানাতে হবে। আশা করছি জানুয়ারিতে আমরা আরেকটি বিজয় উৎসব পালন করতে পারবো।’’

অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আবদুস সবুর বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আমাদের জন্য অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। নির্বাচন ঘিরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব সৃষ্টি হতে পারে। গুজব প্রতিরোধে আমাদের সর্তক থাকতে হবে। আমাদের ডিজিটাল বাংলাদেশের নান্দনিক ব্যবহার করতে হবে।

Advertisement

তিনি বলেন: আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করতে হলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নির্বাচনী ক্যাম্পেইন আরও জোরদার করতে হবে। আগামী ৩০ ডিসেম্বর উন্নয়ন-অগ্রগতি ও তারুণ্যের মার্কা নৌকা বিজয়ী হবে।

‘ডিজিটাল ইলেকশন ক্যাম্পেইন’ প্রশিক্ষণ কর্মশালায় আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটির ‘জয় বাংলা’ নামে একটি মোবাইল অ্যাপ প্রদর্শন করা হয়।

এ অ্যাপের ব্যবহার সম্পর্কে উপস্থিত সবাইকে দিক নির্দেশনা দেয়া হয়। এই অ্যাপটি আওয়ামী লীগের সকল সহযোগী সংগঠনের সকল ইউনিটের নেতাকর্মীরা রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে ব্যবহার করতে পারবে।

এ অ্যাপের মাধ্যমে আওয়ামী লীগে সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ব্যাপকভাবে প্রচার করা যাবে। অ্যাপ ব্যবহারকারীদের সকল তথ্য কঠোর নিরাপত্তার সাথে সংরক্ষণ থাকবে। প্রাথমিকভাবে এই অ্যাপটিতে ১ কোটি মানুষকে যুক্ত করার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অ্যাপের ব্যবহার বিষয়ে বিশদ ব্যাখ্যা করেন আইইবি’র কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং ডিভিশনের চেয়ারম্যান এবং কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. মাহফুজুল ইসলাম।

‘ইফেকটিভ ইউজ অব সোশ্যাল মিডিয়া টুলস’ এর উপর আলোকপাত করেন তথ্য প্রযুক্তিবিদ সুফি ফারুক।

ক্যাম্পেইন ইন টুইটার শীর্ষক আলোচনা করেন টিআইএম নূরুল কবির।