চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতদের উপরে হামলার ঘটনায় তদন্ত কমিটি

ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার পর পদবঞ্চিতদের উপরে হামলার ঘটনায় ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। সোমবার রাতে মধুর ক্যান্টিন এলাকায় মারামারির ঘটনাকে কেন্দ্র করে এ কমিটি গঠন করা হয়। 

সোমবার (১৩ মে) ছাত্রলীগ সভপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞাপন

তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটিতে রয়েছেন, ছাত্রলীগের নতুন কমিটির সহ-সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়, আইন বিষয়ক সম্পাদক ফুয়াদ হোসেন শাহাদাৎ ও তথ্য গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক পল্লব কুমার বর্মন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়: ১৩ মে ইফতারের পরবর্তী সময়ে মধুর ক্যান্টিনে যে অনাকাঙ্খিত ও অপ্রীতিকর ঘটনা সংঘঠিত হয়েছ, আমরা ছাত্রলীগ পরিবার তার তীব্র নিন্দা জানাই। সেই সাথে উক্ত ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির লক্ষ্যে ৩ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হলো।

বিজ্ঞাপন

তদন্ত কমিটিকে আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সরেজমিনে অনুসন্ধান করে তথ্য উপাত্তসহ প্রতিবেদন দপ্তর সেলে জমা দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

সোমবার সন্ধ্যার পর বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে স্থান না পাওয়া (পদবঞ্চিত) নেতাদের উপর হামলার ঘটনা ঘটে।

এই হামলা থেকে বাদ যায়নি নারী নেত্রীরাও। কয়েকজন নেত্রীকে চেয়ার দিয়ে পেটানো হয়েছে। রক্তাক্ত অবস্থায় তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ঢাকা বিশ্বববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের অনুসারীদের চালানো ওই হামলায় মারাত্মক আহত হন ছাত্রলীগ নেত্রী বি এম লিপি আক্তার, শ্রাবণী দিশা, শ্রাবণী শায়লা এবং তিলোত্তমা শিকদার। তাদের মধ্যে শ্রাবণী দিশার ভ্রু’র নিচে অন্তত ১৮টি সেলাই দিতে হয়েছে।