চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঘোষণা দিয়ে সাহায্য করার পক্ষে নই: শাহরুখ

অ্যাসিড আক্রান্ত মহিলা থেকে শুরু করে ক্যানসারে আক্রান্ত রোগী, সবাইকেই বিভিন্ন সময়ে আর্থিকভাবে অনুদান দিয়েছেন বলিউড কিং শাহরুখ খান। করোনার মতো মরণব্যাধী এই মহামারির সময় কি তিনি চুপ থাকতে পারেন?

সাম্প্রতিক করোনার ভয়াল অবস্থা কাটিয়ে উঠতে বিত্তবানদের উদ্দেশে ফান্ড গঠনের আহ্বান জানিয়েছে ভারত সরকার। এমন আহ্বানে ভারতে শিল্পপতি থেকে শুরু করে তারকা খেলোয়ার, অভিনেতা-অভিনেত্রী ও নির্মাতারা এগিয়ে এসেছেন। বলিউডসহ শোবিজের সঙ্গে জড়িত আঞ্চলিক চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রির লোকজনও অর্থ দিচ্ছেন। অথচ এ অবস্থায় একেবারে চুপ কিং খান!

বিজ্ঞাপন

এই করুণ সময়ে যখন একের পর এক তারকা ঘোষণা দিয়ে লাখ কিংবা কোটি রুপি ভারত সরকারের ফান্ডে জমা করছেন, তখন কেন চুপ শাহরুখ? এমন প্রশ্ন সোশাল মিডিয়া জুড়ে!

বিজ্ঞাপন

তাকে ঘিরে প্রশ্ন উঠছে, করোনার কারণে ভারতের এই দুঃসময়ে তবে কি বিত্তবান এই অভিনেতা জনসাধারণের বিপদে এগিয়ে আসছেন না?

এ বিষয়ে শেষমেশ মুখ খুলছেন শাহরুখ। তিনি বলেছেন, ‘চ্যারিটি করতে হলে তা সম্মান আর মর্যাদার সঙ্গে করা উচিত। কোনও বিশেষ কারণে কাউকে যদি কিছু দিতেই হয় তবে সেটা সকলকে জানিয়ে দিলে দেওয়ার উদ্দেশ্যটাই নষ্ট হয়ে যায়।’

বলিউডের এই কিংবদন্তি অভিনেতা আরো বলেন, ফেসবুক থেকে টুইটার ইদানিং মানুষ করোনা মোকাবিলায় যেটুকু সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিচ্ছেন তাতে সাহায্যের আগেই নিজেদের দানের বিষয়কে পোস্ট করে বা টুইটের মাধ্যমে ঘোষণা করছেন। আমি ঘোষণা দিয়ে সাহায্যের পক্ষে নই।

শুধু শাহরুখ খান নন, করোনা মোকাবেলায় ভারত সরকারের গঠিত ‘পিএম কেয়ারস’ নামের এই তহবিলে নাম নেই আমির খান, সালমান খান ও অমিতাভ বচ্চনেরও। এরমধ্যে সালমান খান নিজ উদ্যোগে চলচ্চিত্রের সঙ্গে জড়িত ২৫ হাজার অসচ্ছল কর্মীদের দায়িত্ব নিয়েছেন।