চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কান্না সঙ্গী করে অবশিষ্ট জিনিস ফুটপাতে বিক্রি

গুলশানের ডিএনসিসি মার্কেটের কাঁচা বাজার আগুনে পোড়ার পর ধ্বংসস্তূপে কান্না ভেজা চোখে স্বপ্ন বুনতে শুরু করেছে ব্যবসায়ীরা। ভেজা চোখে তারা মার্কেটের ফুটপাতগুলোতে বিক্রি করছে অবশিষ্ট জিনিসপত্র। কেউবা কসমেটিকস, কেউবা আলু-পটল-সবজি বিক্রি করছেন। চোখে-মুখে আতঙ্কের ছাপ স্পষ্ট হলেও বেঁচে যাওয়া জিনিস বিক্রিতে তাদের ব্যস্ত থাকা দেখা যায়।

বিজ্ঞাপন

শনিবার সকালে আলো ফোটার আগেই মার্কেটে আগুন। এ সময়টাতে বেশিরভাগ দোকানীই ছিলেন নিজ বাসায়। তবে কাঁচামাল ও মুদির দোকানীদের অনেকেই সেই সময়টাতে উপস্থিত থাকায় তড়িঘড়ি করে রক্ষা করতে পেরেছেন কিছুটা।

আর সেসব পণ্য নিয়ে বসে পড়েছেন ডিএনসিসি মার্কেটের পাশের ফুটপাতগুলোতে।

কাঁচাবাজারের বিপরীত পাশে অবস্থিত জব্বার টাওয়ারের ফুটপাতে বস্তার ভেতর বিভিন্ন মনোহারি জিনিসপত্র নিয়ে বসেছিলেন শাহিনূর।

ছবি তুলতে গেলে বস্তা ঢেকে ফেলেন তিনি। পরে অবশ্য বলেন, বাজারে তার মামার দোকান ছিল। মুদি দোকান থেকে চাল ডালের বস্তা বের করতে না পারলেও হাতের সামনে যা পেয়েছেন নারিকেল তেল, টুথপেস্ট, বিভিন্ন মশলাসহ বিভিন্ন মালামাল বের করতে পেরেছিলেন তার মামা হাশেম। পরে তাকে বস্তাটি গছিয়ে দেয় তিনি।

বিজ্ঞাপন

মার্কেটের পেছনের ফুটপাতে কাঁচামাল সাজিয়ে বসা শরীফ জানান, ভোরবেলা শাক-সবজি এনে দোকানে গুছাচ্ছিলেন, এর মধ্যেই আগুন লাগে বাজারের আরেক পাশে। তখন তাড়াহুড়া করে কিছু মালামাল বস্তায় ভরে বের করতে পেরেছেন তিনি।

তিনি বলেন, যারা কাঁচামালা বিক্রেতা তারা কিছু মালামাল বের করতে পেরেছে। তবে অন্যরা কিছুই বের করতে পারেনাই। মূহুর্তের মধ্যেই পুরো বাজারে আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

ফায়ার সার্ভিস জানায় ভোর ৫:৪৮ মিনিটে আগুন লাগে, ঘটনাস্থলে তারা ৫:৫৫ মিনিটে পৌঁছায়। ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিট, সেনাবাহিনীর দুই প্লাটুন সেনাসহ বিমান এবং নৌবাহিনী কাজ করে প্রায় তিন ঘণ্টা পর সকাল ৮:২৫ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

Bellow Post-Green View