চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনা সংকটে হাসপাতাল জুটেনি, প্রবীণ চিত্রগ্রাহকের মৃত্যু

চলে গেলেন চিত্রগ্রাহক বৈদ্যনাথ বসাক। বৃহস্পতিবার রাত তিনটার দিকে নিজ বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন উত্তমকুমারের ৭২টি ছবিতে কাজ করা এই শিল্পী। তার বয়স হয়েছিল ৯৬ বছর।

বৈদ্যনাথ বসাকের ছেলে সঞ্জয় বসাক মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানিয়েছেন তার বাবার শরীর বেশ কয়েক মাস ধরেই খারাপ ছিল। কয়েকদিন ধরে বেশি খারাপ হয়ে যায় তার শারীরিক অবস্থা। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করানোর চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট সংকটে কোনো হাসপাতাল তাকে ভর্তি করেনি। ফলে তাকে বাড়িতে নিয়ে আসা হয় এবং সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

বিজ্ঞাপন

পথে হলো দেরী, সবার উপরে, লালু ভুলু, সাগরিকা, সোনার খাঁচা, সূর্যসাক্ষী, অগ্নিপরীক্ষা, খোকাবাবুর প্রত্যাবর্তন, ছদ্মবেশী, নায়িকা সংবাদ, বাদশা, অপরাহ্ণের আলো, আপন ঘরে-র মতো বহু নামকরা ছবিতে চিত্রগ্রাহক (সহকারি) হিসেবে কাজ করেছেন তিনি।

১৯৫৪ সালে রাজ কাপুরের ‘বুট পালিশ’ ছবিতে সহকারি চিত্রগ্রাহক হিসেবে কাজ করেছিলেন বৈদ্যনাথ। এছাড়াও হরিয়ালি অউর রাস্তা, কিতনে পাস কিতনে দূর-র মতো হিন্দি ছবিতে কাজ করেছিলেন তিনি। বাংলা ও হিন্দি ছাড়াও মালয়ালম, ওড়িয়া ও ভোজপুরী ছবিতেও কাজ করেছেন বৈদ্যনাথ।

শেষ জীবন মোটেই সুখের ছিল না এই শিল্পীর। আর্থিক অনটনের মধ্যেই তাকে সময় কাটাতে হয়েছে। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে চলচ্চিত্র জগতে।