চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনা বিদায় হলেই চীনে চলবে হৃতিকের ‘সুপার থার্টি’

চীনে ভারতীয় ছবির বিশাল বাজার। বিশেষ করে আমির খানের ছবিগুলোর জন্য মুখিয়ে থাকেন চীনের দর্শক। বর্তমানে করোনার কারণে দেশটিতে সব সিনেমা হল বন্ধ। তবে করোনা বিদায় হলেই বিশাল আয়োজনে সেখানে মুক্তি পাবে হৃতিক রোশানের প্রশংসিত ছবি ‘সুপার থার্টি’।

মহামারি করোনা থেকে মুক্তির পথে এগিয়ে যাচ্ছে চীন। সবকিছু ঠিক থাকলে শিগগিরি খুলবে দেশটির সিনেমা হলগুলো। আর প্রথমেই সেখানে মুক্তি দেওয়া হবে বলিউড ‘সুপার থার্টি’।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে ছবিটির প্রযোজক সংস্থা রিলায়েন্স এন্টারটেইনমেন্ট গ্রুপের প্রধান শিভাশীষ সরকার বলিউড হাঙ্গামাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, ‘সুপার থার্টি’র সেন্সরশিপের জন্য চীনে আবেদন করা হয়েছে। দেশটির পারিপারর্শ্বিক অবস্থা স্বাভাবিক হলে প্রথমে এটি সেন্সরে যাবে তারপর দেশটিতে মুক্তি পাবে।

বিজ্ঞাপন

‘সুপার থার্টি’ মূলত ভারতীয় গণিতজ্ঞ আনন্দ কুমারের জীবনের ঘটনা অবলম্বনে তৈরি,  যিনি সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য অনেক কিছুই করেছিলেন। সেই আনন্দ কুমারের ভূমিকায় দেখা মিলেছিল হৃতিকের। ১১৫ কোটি রুপি বাজেটের ‘সুপার থার্টি’ ছবিটি ভারতের বক্স অফিস আয় করেছিল মোট ১৪৬ কোটি রুপি।

বিকাশ বেহল পরিচালিত ‘সুপার থার্টি’ সিনেমাটি প্রযোজনা করছে রিলায়েন্স এন্টারটেইনমেন্টস, সাজিদ নাদিয়াদওয়ালা ও এইচআরএক্স ফিল্মস। ছবিতে হৃতিক রোশান ছাড়াও অভিনয় করেছেন ম্রুণাল ঠাকুর, অমিত সাধ, পঙ্কজ ত্রিপাঠি প্রমুখ।

চীনের বক্স অফিসে সর্বোচ্চ আয়ের বলিউড সিনেমার তালিকায় এখন পর্যন্ত রয়েছে ‘দঙ্গল’, ‘সিক্রেট সুপারস্টার’, ‘বজরঙ্গি ভাইজান’, ‘হিন্দি মিডিয়াম’, ‘আন্ধাধুন’ সহ আরো বেশ কিছু সিনেমা। এবার হয়ত সেই তালিকায় যুক্ত হবে ‘সুপার থার্টি’। যদিও সবকিছু নির্ভর করছে চীনের করোনা পরিস্থিতির উপর।