চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এবার মোহামেডানের বিপক্ষে আশরাফুলের সেঞ্চুরি

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের চলতি আসরে তৃতীয় সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন মোহাম্মদ আশরাফুল। এবার সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে। মঙ্গলবার বিকেএসপিতে রাউন্ড রবিন লিগের শেষ ম্যাচে ১২৪ বলে ১২৭ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের এ ব্যাটসম্যান। ১৩টি চারের সঙ্গে তিনটি ছক্কা দিয়ে সাজানো তার ইনিংস।

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে চার মৌসুম পর লিগে ফেরা আশরাফুল আগের দুটি সেঞ্চুরিও বিকেএপিতে। প্রাইম দোলেশ্বরের বিপক্ষে ১০৪ ও অগ্রণী ব্যাংকের বিপক্ষে ১০২ রানে অপরাজিত থাকেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

লিগে আশরাফুল ছাড়া একাধিক সেঞ্চুরি পাওয়া ব্যাটসম্যান কেবল দুজন-লিটন দাস ও জহুরুল ইসলাম অমি। দুটি করে সেঞ্চুরি করেছেন তারা।

আশরাফুল তৃতীয় সেঞ্চুরিটি তুলে নেন মোহামেডানের স্পিনার তাইজুল ইসলামকে ছক্কা মেরে। ৯০ রান নিয়ে যখন খেলছিলেন তখন বোলিংয়ে আসেন তাইজুল।  এ বাঁহাতি স্পিনারের প্রথম বলে মারেন বাউন্ডারি। পরের বলে সিঞ্চেল নিয়ে প্রান্ত বদলান। তাইবুর রহমান সিঞ্চেল নিলে স্ট্রাইক পেয়ে ছক্কা মেরে তিন অঙ্কে পৌঁছান। শেষ দুই বলে মারেন আরো ‍দুটি চার।  ইনিংসের ৪০তম ওই ওভার থেকে আসে ২০ রান।

সেঞ্চুরির পর আরো বিধ্বংসী হয়ে ওঠেন আশরাফুল। চার-ছক্কার পসরা সাজিয়ে দ্রুত রান তুলতে মনযোগী হন তিনি। ১২৭ রানের মাথায় সেই তাইজুলের বলেই অবশ্য এলবিডব্লুউ হয়ে সাজঘরে ফেরেন।

আশরাফুল এদিন ফিফটি পূর্ণ করেন ৭১ বলে। তিন অঙ্কে পৌঁছান ১১২ বলে। শেষ ১২ বল মোকাবেলায় নেন ২৬ রান। আশরাফুল ঝড় থামার পর পথ হারায় কলাবাগান। দ্রুত উইকেট হারিয়ে ২৬০ রানের বেশি তুলতে পারেনি তারা। অথচ আশরাফুল যেভাবে রানের চাকা ঘুরিয়ে দিয়ে যান, তাতে অনায়াসে তিনশ’র দিকে ছুটতে পারত কলাবাগান।

দারুণ বোলিং করে কলাবাগান ইনিংসে ধস নামান কাজী অনিক। এ বাঁহাতি পেসার তুলে নেন ৬ উইকেট। ৮.৫ ওভারে ৪৪ রান দেয়া অনিকের ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে ২.১ ওভার আগে অলআউট হয় কলাবাগান।