চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘আম্পানে’ ৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত

বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’ এর প্রভাবে সমুদ্র উত্তাল হয়ে উঠায় চট্টগ্রাম, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দর এবং কক্সবাজার সৈকত এলাকাকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

তবে ঘূর্ণিঝড়টি ঠিক কখন, কোথায় আঘাত হানবে- তা নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না আবহাওয়াবিদরা।

বিজ্ঞাপন

তাদের ধারণা, বর্তমানে যেভাবে ‘আম্পান’ এগোচ্ছে, তাতে মঙ্গলবার রাতে বা বুধবার ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ঘেঁষে বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলে ছোবল দিতে পারে।

আবহাওয়াবিদ রাশেদুর জামান চ্যানেল আই অনলাইনকে এর ব্যাখ্যায় বলছেন, ‘লঘুচাপে পরিণত হওয়ার পর থেকে এটি বেশ কয়েক দিন সময় পেয়ে গতি-প্রকৃতি পরিবর্তন করে নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। পরে প্রায় দুই দিন ধরে তা নিম্নচাপে রূপ নেয়। এখন আবার গভীর নিম্নচাপে রূপ নিয়ে বঙ্গোপসাগরের পশ্চিম ও উত্তর–পশ্চিম দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।’

বিজ্ঞাপন

আবহাওয়া অধিদপ্তর সর্বশেষ বুলেটিনে জানিয়েছে, ‘রোবাবার সকাল থেকে গভীর নিম্নচাপটি দক্ষিণ–পূর্ব ও দক্ষিণ–পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছিল। এ সময় এটি চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৩৪৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিমে, কক্সবাজার থেকে ১ হাজার ২৮০ কিলোমিটার দক্ষিণ দক্ষিণ–পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ২৭৫ কিলোমিটার দক্ষিণ দক্ষিণ–পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ২৫৫ কিলোমিটার দক্ষিণ দক্ষিণ–পশ্চিমে অবস্থান করছিল।’

‘‘তা আরও ঘনীভূত হয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৫৪ কিঃ মিঃ এর মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘন্টায় ৬২ কিঃ মিঃ যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৮৮ কিঃ মিঃ পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের নিকটবর্তী এলাকায় সাগর খুবই বিক্ষুব্ধ রয়েছে।’’

এমন অবস্থায় পূর্ব সতর্কতা হিসেবে চট্টগ্রাম, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দর ও কক্সবাজার সৈকত এলাকাকে নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত নামিয়ে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

পাশাপাশি উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে
সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। এবং গভীর সাগরে না যেতে নিষেধ করা হয়েছে।

‘আম্পানে’র প্রভাবে রংপুর, ময়মনসিংহ, সিলেটের কিছু কিছু জায়গায় দক্ষিণ অথবা দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। সেই সঙ্গে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টিসহ বৃষ্টিও হতে পারে।