চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘অসহায়কে সাহায্য করেন সালমান, কিন্তু কখনো জানতে দেন না’

বলিউডে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকেই স্বজনপ্রীতিকে কেন্দ্র করে বেশ কয়েকদিন যাবত রোষের মুখে পড়েছেন বলিউড ভাইজান সালমান খান। ফলে বিষয়টিকে কেন্দ্র করে সালমানের ভালো গুণ গুলোকে ভুলতে শুরু করেছেন অনেকেই। তবে এবার তার বিষয়ে মুখ খুললেন সদ্য প্রয়াত কোরিওগ্রাফার সরোজ খানের মেয়ে সুকন্যা খান।

সম্প্রতি পিঙ্কভিলাকে দেওয়া একটি সাক্ষাতকারে তিনি জানিয়েছেন, আমার ছেলের ওপেন হার্ট সার্জারির সময় একমাত্র সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন সালমান খান। ওপেন হার্ট সার্জারির জন্য ছেলেকে আমার কেরালা নিয়ে যেতে হয়েছিল, সেই সময় সালমানই সব দায়িত্ব নিয়েছিলেন। আমাদের গোটা পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন। যখন আমাদের সবচেয়ে বেশি দরকার ছিল, উনিই সঙ্গে ছিলেন। আমার মা সালমানের এই গুণটার জন্যই সালমানকে মন থেকে সম্মান করতেন।

এদিকে সুশান্তের প্রসঙ্গকে উল্লেখ করে তিনি আরো জানান, ‘আমি জানি না কেন মানুষ নেগেটিভ বিষয় গুলোকেই মনে রাখতে চায় এবং সালমানের সম্পর্কে খারাপ কথা বলেন। উনি তো বরাবরই সবার পাশে দাঁড়ান, অনেকভাবে মানুষজনকে সাহায্য করেন কিন্তু জানতে দেন না।

হাসপাতালে যাওয়ার আগেও পরিবার ছাড়া একমাত্র সালমান খানের জন্যই নামাজ শেষে প্রার্থনা করতেন সরোজ খান, এমনটাও জানিয়েছেন তার মেয়ে। বলিউডে যখন সরোজ খানের হাতে কাজ ছিল না, তখনও সরোজ খানের রক্ষাকর্তা হিসাবে এগিয়ে এসেছিলেন সালমান খান।

প্রসঙ্গত, এর আগে ‘আন্দাজ আপনা আপনা’ ছবির সেটে সালমান খানের সঙ্গে সরোজ খানের কিছু মত পার্থক্য দেখা গিয়েছিল। যদিও সেই সব পার্থক্যের কথা সময়ের সঙ্গে সঙ্গে মনে রাখেননি দুজনের কেউই। তাই সরোজ খানের মৃত্যুর পর সালমান খানের বিরুদ্ধে উঠা অভিযোগের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন মাস্টারজির পরিবার।

শেয়ার করুন: