চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Cable

স্টার সিনেপ্লেক্সের ১৭ বছর: জেমস বন্ড এবং নতুন মাল্টিপ্লেক্স

অপেক্ষার প্রহর ফুরোচ্ছে, ঢাকার প্রেক্ষাগৃহে দেখা যাবে জেমস বন্ড এর নতুন ছবি…

Nagod
Bkash July

বছরের বহুল প্রতীক্ষিত সিনেমা জেমস বন্ড সিরিজের ‘নো টাইম টু ডাই’। গেল সপ্তাহে যুক্তরাজ্যে মুক্তির পর থেকেই একের পর এক রেকর্ড অর্জন করছে সিনেমাটি।

Reneta June

শুক্রবার থেকে যুক্তরাষ্ট্র সহ বিশ্বব্যাপী মুক্তি পাচ্ছে ডেনিয়েল ক্রেগ অভিনীত সিনেমাটি। এদিন থেকে ঢাকার দর্শকরাও বড় পর্দায় দেখতে পারবেন বহুল প্রতীক্ষিত জেমস বন্ড সিরিজের সিনেমাটি!

তবে দেশের প্রথম মাল্টিপ্লেক্স সিনেমা হল স্টার সিনেপ্লেক্স এর ১৭ বছর পূর্তি উপলক্ষে ‘নো টাইম টু ডাই’ সিনেমাটি সাধারণ দর্শকের একদিন আগেই দেখতে পারবেন আমন্ত্রিত অতিথিরা।

স্টার সিনেপ্লেক্সের মিডিয়া ও মার্কেটিং বিভাগের সিনিয়র ম্যানেজার মেসবাহ উদ্দিন আহমেদ জানান, ৮ অক্টোবর পথচলার ১৭ বছর পেরিয়ে ১৮ বছরে পদার্পণ করছে দেশের প্রথম মাল্টিপ্লেক্স সিনেমা হল স্টার সিনেপ্লেক্স। এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) সন্ধ্যায় মিরপুরে স্টার সিনেপ্লেক্সের নতুন শাখায় জাঁকজমকপূর্ণ এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

তিনি জানান, এ আয়োজনে থাকছে স্টার সিনেপ্লেক্স মিরপুর শাখার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন এবং জেমস বন্ড সিরিজের নতুন ছবি ‘নো টাইম টু ডাই’-এর প্রিমিয়ার শো এ ছাড়া থাকছে কেক কাটা ও রেড কার্পেট ফটোসেশন।

সরকারের উচ্চ পর্যায়ের ব্যক্তিবর্গ, করপোরেট ব্যক্তিত্ব, সাংবাদিক, চলচ্চিত্র ও বিভিন্ন অঙ্গনের তারকারা এ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বলে জানান স্টার সিনেপ্লেক্সের এই কর্মকর্তা।

২০০৪ সালের ৮ অক্টোবর রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি শপিং মলে যাত্রা শুরু করে স্টার সিনেপ্লেক্স। নান্দনিক পরিবেশ, সর্বাধুনিক প্রযুক্তিসম্বলিত সাউন্ড সিস্টেমসহ নানা অভিনবত্বের মধ্য দিয়ে দেশের সিনেমাপ্রেমী দর্শকদের আকৃষ্ট করে প্রেক্ষাগৃহটি। নানামুখী সংকটের কারণে যখন দর্শক হলবিমুখ হয়ে পড়েছিলো তখন স্টার সিনেপ্লেক্সের যাত্রা নতুন আশার আলো সঞ্চার করে। পরিবার নিয়ে হলে গিয়ে সিনেমা দেখার দিন ফিরে আসে আবার। একটা সময় হলিউডের ছবি বড় পর্দায় দেখার সুযোগ ছিলো না বাংলাদেশের দর্শকদের। সেই আক্ষেপ ঘোচায় স্টার সিনেপ্লেক্স।

সিনেমাপ্রেমীদের প্রিয় নাম হয়ে উঠেছে স্টার সিনেপ্লেক্স। বর্তমানে একটি ভিআইপি হলসহ মোট পাঁচটি হল রয়েছে বসুন্ধরা সিটি শপিং মলে। এ ছাড়া ধানমন্ডির সীমান্ত স্কয়ার এবং মহাখালীর এসকেএস টাওয়ারে দু’টি শাখা রয়েছে। সম্প্রতি মিরপুরে চালু হয়েছে চতুর্থ শাখা। শুধু ঢাকা নয়, ঢাকার বাইরেও চালু হচ্ছে স্টার সিনেপ্লেক্স।

বগুড়ার সাতমাথা মোড়ে পুলিশ প্লাজায় নির্মিত হতে যাচ্ছে নতুন শাখা। গত ৩ অক্টোবর রাজধানীর এসকেএস টাওয়ারে স্টার সিনেপ্লেক্স এবং পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্টের মধ্যে এ বিষয়ক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। আগামীতে ঢাকার উত্তরাসহ ধারাবাহিকভাবে দেশব্যাপী অনেকগুলো হল নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানায় স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ।
দেশের সিনেমাপ্রেমী মানুষদের জন্য বিশ্বমানের আধুনিক সিনেমা হল উপহার দেয়ার পাশাপাশি চলচ্চিত্রশিল্পকে এগিয়ে নিতে স্টার সিনেপ্লেক্স নানামুখী প্রয়াস সকলের নজর কেড়েছে। দেশীয় চলচ্চিত্রের পৃষ্ঠপোষকতায় এই মাল্টিপ্লেক্স সিনেমা হল কর্তৃপক্ষ বরাবরই সচেষ্ট। তাই চলচ্চিত্র নির্মাণেও যুক্ত হয়েছেন তারা। গতানুগতিকতার বাইরে গিয়ে ভিন্নধর্মী সিনেমা নির্মাণের চ্যালেঞ্জ নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। ২০১৯ সালের ২৯ নভেম্বর মুক্তি পায় স্টার সিনেপ্লেক্স প্রযোজিত প্রথম চলচ্চিত্র ‘ন ডরাই’। সার্ফিং নিয়ে নির্মিত দেশের প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য বাংলা চলচ্চিত্র এটি। ছবিটি পরিচালনা করেছেন তানিম রহমান অংশু। প্রথম ছবিতেই চমক সৃষ্টি করেছে স্টার সিনেপ্লেক্স। ২০১৯ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-এ সেরা চলচ্চিত্রসহ ছয়টি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার জয় করেছে ‘ন ডরাই’।

১৭ বছর পূর্তিতে দর্শকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান রুহেল বলেন, ‘স্টার সিনেপ্লেক্স আজ এ পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে দর্শকদের ভালোবাসায়। দর্শকরাই স্টার সিনেপ্লেক্সের প্রাণ। পথচলার শুরু থেকে দর্শকদের প্রত্যাশা পূরণের চেষ্টা করে যাচ্ছি আমরা। দিনে দিনে এর পরিধি আরো বাড়বে। শুধু বিদেশী ছবির উপর নির্ভরতা নয়, আমরা চাই আমাদের দেশে ভালো ভালো ছবি নির্মিত হোক। বাংলাদেশের সিনেমা দেখার জন্য সবসময় হলে ভিড় লেগে থাকুক’।

BSH
Bellow Post-Green View