চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মোবাইলে বানানো বাংলাদেশি নির্মাতার ছবি ব্রাজিলে পুরস্কৃত

Nagod
Bkash July

মোবাইলে বানানো বাংলাদেশি তরুণ নির্মাতার ছবি পুরস্কৃত হলো ব্রাজিলে। নির্মাতার নাম চৈতন্য রাজবংশী। তার বানানো স্বল্পদৈর্ঘ্য প্রামাণ্যচিত্রটির নাম ‘মাটিশ্বর’।

Reneta June

ব্রাজিলের ‘ফেস্টিভ্যাল ডি সিনেমা অল্টার ডু চাও ২০২২’ আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে প্রতিযোগিতা করে বিজয়ী হয়েছে ‘মাটিশ্বর’। খবরটি জানিয়েছেন নির্মাতা নিজেই।

উৎসবের মূল প্রতিযোগিতা বিভাগ ‘স্মার্টফোন ইন্টারন্যাশনাল’। এই বিভাগেই সেরা চলচ্চিত্র নির্বাচিত হয়েছে প্রামাণ্যচিত্র ‘মাটিশ্বর’।

এ বিষয়ে তরুণ এই নির্মাতা বলেন, ‘যেকোন কাজের স্বীকৃতিই তো আনন্দের। কিন্তু এই স্বীকৃতি আমার জন্য আরও বিশেষ। কারণ, প্রামাণ্যচিত্রটি নির্মাণ করেছি মোবাইল ফোন দিয়ে। এমন একটি অর্জন নিশ্চয় আমার মতো আরও তরুণ নির্মাতাদের উৎসাহ প্রদান করবে।’

নির্মাতা মনে করেন, দৃঢ় মনোবল ছিলো বলেই মোবাইল ফোন দিয়ে সিনেমা নির্মাণের কথা ভেবেছিলেন। আর সেটা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে যেতে পেরেছেন। চৈতন্য বলেন, ‘ইচ্ছাশক্তি থাকলে মোবাইল দিয়েও সিনেমা নির্মাণ করা যায়। নিজের কাছে যে সামর্থ আছে তাই দিয়েই গল্প বলে যেতে হবে ফ্রেমে ফ্রেমে।’

মোবাইল দিয়েই শুরু করেছিলেন দৃশ্য ধারণের কাজ

‘মাটিশ্বর’ নির্মাণের প্রেক্ষাপট জানিয়ে তরুণ এই নির্মাতা বলেন, ‘ছোটবেলা থেকেই কুমারদের দেখে আসছি। মাটির সাথে তাদের অস্তিত্বের জীবনচিত্র। হাড়ভাঙ্গা খাটুনি করতে হয় তাদের। রচিত হয় তাদের জীবন প্রবাহ। মাটিই যেন হয়ে উঠে ঈশ্বর। এই মাটির স্বরূপ সন্ধান করতেই আমার এই কাজ।’

দুই সহ-নির্মাতা রাম পাল ও পার্থ পালকে নিয়ে মহামারীর সময়ে কাজটি করেনজানিয়ে নির্মাতা বলেন, ‘মাটিশ্বর’ আমার প্রথম প্রামাণ্যচিত্র। করোনাকালীন সময়ে পর্যাপ্ত বাজেট এবং টেকনিক্যাল কোন সাপোর্ট না থাকায় সিদ্ধান্ত নেই হাতের কাছে যা আছে তাই নিয়েই সিনেমাটা বানাবো। মাটির সাথে মানুষের যে গভীর সম্পর্ক তার প্রতিচ্ছবি তুলে ধরার দারুণ এক টানেই শুরু করি মাটিশ্বর নির্মাণ। তখন প্যান্ডেমিক এর কারণে বের হওয়া কষ্টকর ছিল বিধায় বেশ কিছুদিন আমাকে সেখানে থেকেই চিত্র ধারণের কাজ করতে হয়েছে। আর কিছু না পেয়ে নিজের মোবাইল দিয়েই নির্মাণ করি।

BSH
Bellow Post-Green View