চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Group

টিভি তারকা থেকে বলিউড জয়

Nagod
Bkash July

আশির দশকের আগ পর্যন্ত বিনোদনের একমাত্র মাধ্যম ছিল সিনেমার পর্দা। তখন বলিউড অথবা আঞ্চলিক সিনেমার সুপারস্টাররা ভিনগ্রহের মানুষ ছিলেন! তবে আশির দশকের শুরু থেকে ভারতীয় টেলিভিশনের নয়া আবির্ভাবের পর থেকে নতুন করে পথ চলা শুরু হয় বিনোদন অঙ্গনে। নতুন নতুন সিরিয়াল মন জয় করে নেয় দর্শকদের। আর একইসঙ্গে সিনেমার পর্দার বাইরেও নতুন নতুন তারকারা জন্ম নিতে শুরু করেন ভারতীয় টেলিভিশনের পর্দায়।

শুধু তাই নয় শাহরুখ খান, বিদ্যা বালান, আর মাধবনের মতো তারকারাও ভারতীয় টেলিভিশন থেকে উঠে এসেই বলিউড মাত করেছেন। এক নজরে জেনে নেওয়া যাক এমনই কিছু তারকাদের সম্পর্কে যারা টেলিভিশনে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করলেও তারকাখ্যাতি পেয়েছেন চলচ্চিত্রে।

শাহরুখ খান
তার টেলিভিশন ক্যারিয়ার কম বেশি সবারই জানা। মূলত ১৯৮৯ সালে টেলিভিশন শো ‘ফৌজি’ মাধ্যমে তার ক্যারিয়ারের যাত্রা শুরু হয়েছিল। এরপরই বলিউডে তার পথ খুলে যায়। যদিও তার পথ চলাটা খুব সহজ ছিল এমন না। তবে নিজের অভিনয় দক্ষতা দিয়ে আজ সারা বিশ্ববাসীর কাছে জনপ্রিয় এই সুপারস্টার।

বিদ্যা বালান
টেলিভিশনে বেশ কিছু বিজ্ঞাপনচিত্র ও মিউজিক ভিডিওতে কাজের মধ্য দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করেন বিদ্যা। এরপর ১৯৯৫ সালের দিকে ‘হাম পাঁচ’ নামক একটি কমেডি ধারাবাহিকে অভিনয় শুরু করেন। দীর্ঘদিন টেলিভিশনে কাজ করার পর ২০০৩ সালে বাংলা চলচ্চিত্র ‘ভালো থেকো’ ছবির মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রে প্রবেশ করেন। বলিউডে তার প্রথম ছবি ‘পরিণীতা’। ছবিতে অসাধারণ অভিনয় করে আলোচনায় চলে আসেন বিদ্যা। এরপর ‘কাহানী’, ‘লাগে রাহো মুন্না ভাই’, ‘ডার্টি পিকচার’ এর মতো ব্যবসাসফল ছবিতে অভিনয় করে সাফল্যের চূড়ায় পৌঁছে যান।

আর মাধবন
শুরুতে বিভিন্ন টেলিভিশন ধারাবাহিকে ছোট ছোট চরিত্রে অভিনয় করতেন বলিউডের অন্যতম সফল এই অভিনেতা। ২০০০ সালে তামিল ছবি ‘আলাইপায়ুদে’ তে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রে প্রবেশ করেন। সেখানে আরও বেশ কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করে তারকা খ্যাতি পেয়ে যান। এরপর বলিউডে ‘র‍্যাহনা হ্যায় তেরে দিলমে’, ‘রঙ দে বাসন্তী’, ‘থ্রী ইডিয়টস’ এর মতো ছবিতে অভিনয় করে হয়ে উঠেন মহা তারকা।

আয়ুষ্মান খুরানা
ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে টেলিভিশনে ভিডিও জকি হিসেবে কাজ করতেন। এছাড়া বিভিন্ন টেলিভিশন অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করতেন। সাবলীল অভিনয় ও সংগীত প্রতিভা তাকে সহজেই বলিউডে সুযোগ করে দেয়। প্রথম ছবি ‘ভিকি ডোনার’ এ অভিনয় করে আলোচনায় চলে আসেন আয়ুষ্মান। সেই সাথে ফিল্মফেয়ার জিতে নেন সেরা নবাগত অভিনেতা ও কণ্ঠশিল্পীর পুরস্কার। এছাড়াও আয়ুষ্মান কম বাজেটে সিনেমায় ‘হিট মেশিন’ নামেও পরিচিতি পেয়েছেন।

আদিত্য রায় কাপুর
একজন ভিডিও জকি হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন ‘আশিকি ২’ খ্যাত এই তারকা। তরুণ প্রজন্মের কাছে বেশ জনপ্রিয়ও ছিলেন তিনি। পরবর্তীতে তার আকর্ষণীয় শারীরিক ভাষা ও স্নিগ্ধ হাসি তাকে বলিউডের দরজা খুলে দেয়। প্রথম ছবি ‘আশিকি ২’ তে মদ্যপ হতাশাগ্রস্থ প্রেমিকের চরিত্রে দুর্দান্ত অভিনয় তাকে রাতারাতি তারকাখ্যাতি এনে দেয়।

ইরফান খান
ক্যারিয়ারের শুরুতে বেশ সংগ্রাম করেছিলেন এই অভিনেতা। কিন্তু কখনো খ্যাতির পেছনে ছোটেন নি। অসামান্য মেধা, পরিশ্রম ও ধৈর্য তাকে বলিউডের সীমানা ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিক খ্যাতি এনে দেয়। এক সময় ছোট পর্দায় ‘শ্রীকান্ত’, ‘ভারত এক খোঁজ’ নামক টেলিভিশন ধারাবাহিকে অভিনয় করতেন। কিন্তু জীবনের শেষ সময় অব্দি আন্তর্জাতিক ছবি এবং ওয়েব সিরিজে দাপিয়ে বেড়িয়েছেন এই তারকা।

সুশান্ত সিং রাজপুত
‘পবিত্র রিস্তা’ নামক একটি টেলিভিশন ধারাবাহিকে অভিনয় করে আকাশচুম্বী সফলতা পেয়েছিলেন প্রয়াত এই তারকা। টেলিভিশনে এত জনপ্রিয়তা সত্ত্বেও বলিউডকে তিনি এক প্রকার চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছিলেন। ২০১৩ সালে তার প্রথম ছবি ‘ক্যায় পৌ ছে’ তে অভিনয় করে প্রশংসিত হন। এরপর ‘সুধ দেশী রোমান্স’, ‘ডিটেকটিভ ব্যোমকেশ বক্সি’ ছবিতেও তার অভিনয় প্রশংসিত হয়। তবে ২০১৬ সালে ‘এমএস ধনিঃ দ্য আনন্টোল্ড স্টোরি’ ছবিতে অভিনয় করে মানুষের খুব কাছাকাছি পৌঁছে যান সুশান্ত। –কইমই ডটকম

BSH
Bellow Post-Green View