চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রভাবশালী পীরের বিরুদ্ধে কথা বলতেও ভয় এলাকাবাসীর

শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া উপজেলার প্রধান খালটি দখল করে রেখেছে সুরেশ্বর দরবারের পীরের বংশধরদের একাংশ। দখলকারীদের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসন দফায় দফায় চিঠি দিয়েছে। খাল উদ্ধারে সরকারের বরাদ্দ হওয়া ৬০ কোটি টাকাও ব্যয় হয়নি। তবে প্রভাবশালী এই পীর বংশধরদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করতেও ভয় পান এলাকাবাসী।

শরীয়তপুর জেলার নরীয়া উপজেলার নরীয়া থানা। পাশেই প্রবাহমান পদ্মা। এখানেই গড়ে উঠেছে সুরেশ্বর দরবার শরীফ।

পীরের বংশধররা একাধিক দরবার প্রতিষ্ঠা করলেও সবগুলোর নামই সুরেশ্বর দরবার। পদ্মা নদীর সঙ্গে যুক্ত ছিলো একসময়ের প্রবাহমান এই খাল। যা এখন এই দরবারের দখলে।

দখলকারীদের বিরুদ্ধে দফায় দফায় চিঠি দিয়েছে জেলা প্রশাসন। পীরের বংশধর সৈয়দ শাহ সুরে বোরহান, সৈয়দ শাহ নুরে কামাল এবং সৈয়দ শাহ নূরে বেল্লাল নূরী-খালটি দখল করে আছেন বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

বিজ্ঞাপন

খালটি পূণরূদ্ধারে সরকার ‘সুরেশ্বর খাল পুণঃখনন ও নিষ্কাশন’ প্রকল্প তৈরি করে। যার ব্যয় ধরা হয়েছিলো ৬০ কোটি টাকা। কিন্তু প্রভাবশালীদের হস্তক্ষেপে এই অর্থ ব্যয় হয়নি।

দরবারের রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে থাকা একাংশ দখলের কথা স্বীকার করে বলেছেন, যারা দখলে আছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন।

প্রতি বছর নির্দিষ্ট একটি সময়ে এই দরবারের মাহফিলে দেশের বিভিন্নপ্রান্ত থেকে আসেন লাখ লাখ মানুষ।

বিস্তারিত দেখুন ভিডিও রিপোর্টে:

বিজ্ঞাপন