চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সরকারি ষড়যন্ত্রে গাজীপুরে নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে: বিএনপি

ক্ষমতাসীনরা তাদের নিশ্চিত পরাজয় ও ভরাডুবি ঠেকানোর জন্যই সরকারি সংস্থা বা বিভিন্ন সংস্থার রিপোর্টের ভিত্তিতে ১৫মে অনুষ্ঠিতব্য গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন স্থগিত করেছে বলে দাবি বিএনপির।

রোববার গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন হাইকোর্টে স্থগিত হওয়ার পর চ্যানেল আই অনলাইনকে দেয়া প্রতিক্রিয়ায় বিএনপি নেতারা এমন দাবি করেন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, সরকার নিশ্চিত পরাজয় জেনে নির্বাচন কমিশনকে দিয়ে এটি করিয়েছে। আমরা আগেই বলেছি, এ নির্বাচন কমিশনের একটি সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনের কোনো যোগ্যতা নেই। খুলনা নির্বাচনেও সরকারি বাহিনী বেপরোয়া কাজ করছে। আমরা বহুবার বলেছি। কোনো কাজ হচ্ছে না। আসলে এ সরকার কোনো নির্বাচন চায় না। তারা ক্ষমতা চায়।

বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, নির্বাচনকে যারা ভয় পায়, একতরফা জাতীয় নির্বাচন করে যারা ক্ষমতা দখল করে, তাদের তো ক্ষমতা দখলের মানসিকতাই থাকবে। সেখানে জনগণের রায় আছে কিনা সেই পরীক্ষা দেয়ার সৎ সাহস তাদের নেই। তারা তাদের নিশ্চিত ভরাডুবি ঠেকানোর জন্যই সরকারি সংস্থা বা বিভিন্ন সংস্থার রিপোর্টের আলোকে এই কাজ করেছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা এটা নিয়ে আইনি লড়াই করবো। আমরা এ স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারে আদালতে যাচ্ছি শিগগিরই এবং এই নির্বাচনী কর্মকাণ্ড যাতে আবার দ্রুত শুরু হয়, সে ব্যাপারে আমরা ইতিমধ্যেই প্রস্তুতি নিয়েছি এবং সেই সাথে আমরা ধিক্কার জানাচ্ছি সরকারকে আদালতকে ব্যবহার করে ষড়যন্ত্রমূলক সিদ্ধান্ত নেবার জন্য।