চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শ্রীলঙ্কা সফরের ভাগ্য নির্ধারণ বুধবার

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের (এসএলসি) কঠিন শর্ত মেনে দেশটিতে সফর করতে রাজি নয় বাংলাদেশ। শর্তাবলী নিয়ে বিসিবির আপত্তির পর বিষয়টিকে গুরুত্ব দিচ্ছে আয়োজক দেশের বোর্ড। বুধবার এসএলসি প্রতিনিধি দল দেশটির প্রেসিডেন্সিয়াল টাস্কফোর্সের (কোভিড-১৯) সঙ্গে বৈঠক করবে।

লঙ্কান ক্রীড়া সাংবাদিক দানুশকা আরভিন্দ মঙ্গলবার চ্যানেল আই অনলাইনকে এসএলসি-টাস্কফোর্স বৈঠকে বসতে যাওয়ার তথ্য জানান।

বিজ্ঞাপন

বুধবারের সভাতে নির্ধারণ হয়ে যেতে পারে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সিরিজের ভাগ্য। পরিস্থিতি যা তাতে আয়োজক দেশ নমনীয় না হলে স্থগিত হয়ে যাবে সিরিজ। মুমিনুলদের তখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে অপেক্ষা করতে হবে জানুয়ারি পর্যন্ত। আগামী বছরের শুরুতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের বাংলাদেশ সফর করার কথা রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাসের কারণে মার্চ থেকে বন্ধ মাঠের খেলা। মাঝে স্থগিত হয়েছে বেশ কয়েকটি সিরিজ। দীর্ঘ করোনা বিরতি কাটিয়ে অক্টোবরে শ্রীলঙ্কা সিরিজ দিয়েই আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ফেরার কথা টাইগারদের। সেটি নিয়েও শেষ মুহূর্তে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা।

শ্রীলঙ্কার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনার পর এসএলসি চিঠিতে বিসিবিকে জানায়, সেখানে গিয়ে ১৪ দিন বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে বাংলাদেশ দলকে। করা যাবে না অনুশীলন, থাকতে হবে হোটেলবন্দি হয়ে। দলে থাকা যাবে না ৩০ জনের বেশি সদস্য। সঙ্গে জুড়ে দেয়া হয় আরও কিছু শর্ত।

এত শর্ত মেনে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের তিন ম্যাচের সিরিজ খেলতে শ্রীলঙ্কা যাওয়া সম্ভব নয়, মঙ্গলবার সাফ জানিয়ে দেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। দেশের সংবাদমাধ্যমে বিষয়টি জানানোর পাশাপাশি আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি দেন এসএলসিকে।

আসন্ন সিরিজ নিয়ে জটিলতার খবর নজরে পড়ে শ্রীলঙ্কার ক্রীড়ামন্ত্রী নামাল রাজাপাকসের। দেশটির ক্রিকেট বোর্ডকে তিনি নির্দেশ দেন, কোভিড-১৯ টাস্কফোর্সের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করতে। তারই প্রেক্ষিতে বিশেষ বিবেচনায় কোয়ারেন্টাইন নিয়ম শিথিল করা করা যায় কিনা বুধবার হবে সেই আলোচনা।