চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শাকিব খানের বিরুদ্ধে সেলিম খানের নোটিশ

দেশের শীর্ষ নায়ক শাকিব খানের বিরুদ্ধে বেশকিছু অভিযোগ এনে তার বিরুদ্ধে নোটিশ পাঠিয়েছেন শাপলা মিডিয়ার কর্ণধার সেলিম খান। এমনকি আগামি সাত দিনের মধ্যে অভিযোগ গুলোর সুষ্ঠু সমাধানে না গেলে শাকিবের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও অভিযোগপত্রে উল্লেখ করেন সেলিম।

শাপলা মিডিয়ার নিজস্ব প্যাডে এই প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার সেলিম খানের স্বাক্ষর সম্বলিত শাকিব খান বরাবর ওই নোটিশের একটি কপি চ্যানেল আই অনলাইনের কাছে এসেছে।

বিজ্ঞাপন

নোট প্যাডে কোনো তারিখ না থাকায় নোটিশটি নিয়ে জানতে চাইলে যোগাযোগ করা হয় সেলিম খানের সঙ্গে। চ্যানেল আই অনলাইনকে তিনি জানান, এই নোটিশটি বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) শাকিব খানকে পাঠানো হয়েছে। যার অনুলিপি দেয়া হয়েছে তথ্য মন্ত্রণালয়, প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব বরাবর, চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতি, পরিচালক সমিতি ও শিল্পী সমিতি বরাবর।

কী আছে সেই নোটিশে? নোটিশে স্পষ্ট ভাষায় সেলিম উল্লেখ করেন: ২০১৮ সালের ১৬ ডিসেম্বর মুক্তির লক্ষ্যে শাপলা মিডিয়ার প্রযোজনায় ‘একটু প্রেম দরকার’ নামের একটি ছবিতে ৬০ লাখ টাকায় চুক্তিবদ্ধ হন শাকিব। সে বছর সেপ্টেম্বরের ২৫ তারিখে শুটিংও শুরু হয়। কিন্তু শুটিংয়ের সময় শাকিব ছিলেন অমনযোগি, শুটিংস্পটে প্রতিদিনই ৪/৫ ঘন্টা দেরি করে আসতেন শাকিব, কখনো কখনো আসতেন ও না! এমনটাই উল্লেখ আছে নোটিশে। শাকিবের খামখেয়ালির কারণে প্রোডাকশনের নির্ধারিত বাজেটের চেয়ে প্রায় ১কোটি টাকা বেশী খরচ হয়েছে বলেও নোটিশে তুলে ধরেন সেলিম।

শুধু তাই না, শুটিং শেষ হলেও এখন পর্যন্ত ডাবিং শেষ করেননি শাকিব। আর এসব কারণে নির্দিষ্ট সময়ে ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দিতে না পারায় আর্থিক ক্ষতির কথাও তুলে ধরা হয় শাকিবকে পাঠানো নোটিশে। নোটিশে সেলিম বলেন, ‘একটু প্রেম দরকার’-এর কাজ বাকি রেখে শাকিব তার নিজস্ব প্রডাকশন থেকে ‘পাসওয়ার্ড’ ও আরেকটি ছবি ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’ শেষ করে মুক্তিও দিয়ে দিয়েছেন। অথচ আমার ছবিটির ডাবিং করার ই তার সময় হয় না!

আগামী ১৬ ডিসেম্বরকে টার্গেট করে ফের ‘একটু প্রেম দরকার’ ছবিটির মুক্তির পরিকল্পনা করছেন সেলিম। তাই এরমধ্যে যদি এই ছবিটির কাজ শাকিব শেষ না করেন তাহলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে সেলিম বলেন, এই পত্র পাওয়ার সাত দিনের মধ্যে যদি শাকিব ছবিটির কাজ শেষ না করার উদ্যোগ নেন তবে ছবিটির নির্মাণ খরচ দুই কোটি তেত্রিশ লক্ষ তিনশো তিরাশি টাকা এবং এক বছরের ক্ষতিপূরণ সহ শাপলা মিডিয়াকে দিয়ে দেয়ার অনুরোধ করছি। অন্যথায় সরকারের প্রচলিত ব্যবস্থায় আইগত ব্যবস্থা নেয়া হবে এবং সংবাদ সম্মেলন করে দেশবাসীকে বিষয়টি জানানো হবে।

এই প্রেক্ষিতে যোগাযোগ করা হয় শাকিব খানের সাথে। চ্যানেল আই অনলাইনকে বুধবার দুপুরে শাকিব বলেন, নোটিশ পাঠানোর বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। আর কেনোই বা নোটিশ দেয়া হলো সেটাও জানি না। হয়তো আলোচনায় আসতেই এমনটা করা হয়েছে।

এদিকে নোটিশ নিয়ে প্রযোজক চ্যানেল আই অনলাইকে বলেন, ২-৩ দিন শিডিউল দিলেই ডাবিং শেষ হবে। প্রায় দুইমাস শাকিবের কাছে ডেট চাওয়ার পরেও তিনি ডেট দিচ্ছেন না। বাধ্য হয়েই নোটিশ দিয়েছি।

Bellow Post-Green View