চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শবে বরাত: ১৭ তারিখ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে বললেন হাইকোর্ট

এবারের শবে বরাত ২০ নাকি ২১ এপ্রিল হবে; সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত পেতে যে আবেদন করা হয়েছিল, তার পরিপ্রেক্ষিতে বিষয়টি নিয়ে আগামী ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে বলেছেন হাইকোর্ট।

শাবান মাসের চাঁদ গত ৬ এপ্রিল দেখা গেছে এবং সে অনুযায়ী আগামী ২০ এপ্রিল শবে বরাত হবে – এমন দাবি করে হাইকোর্টে সোমবার একটি রিটের অনুমতি চেয়ে আবেদন করেন মজলিসু রুইয়াতুল হিলাল ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি সংগঠনের সভাপতি আবুল বাশার মুহম্মদ রুহুল হাসানসহ ১০ জন।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু বিচারপতি এফ আর এম নামজুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ রিট আবেদনের অনুমতি না দিয়ে আবেদনকারীকে ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত এবিষয়ে অপেক্ষা করতে বলেন।

একই সঙ্গে তাদের দাবি সম্বলিত বক্তব্য লিখিতভাবে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালকের কাছে দাখিল করতেও বলা হয়।

এ সময় আদালত বলেন, ‘এটা একটা ধর্মীয় স্পর্শকাতর বিষয়। তাই এটাকে আদালতে টেনে না আনাই ভাল। আপনাদের (আবেদনকারী) বক্তব্য ইসলামিক ফাউন্ডেশনে লিখিতভাবে জমা দিন। যেহেতু আগামী ১৭ এপ্রিল এ বিষয়ে বৈঠকে বসার কথা রয়েছে তাই সেই পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।

তারা (ইসলামিক ফাউন্ডেশন) যদি আপনাদের বক্তব্য বিবেচনায় না নেয়, তবে আমাদের কাছে আসবেন। তখন ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

বিজ্ঞাপন

আজ আদালতে আবেদনকারীর আইনজীবী ছিলেন খুরশীদ আলম খান। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারি অ্যাটর্নি জেনারেল সাইফুল আলম।

এর আগে গত ৬ এপ্রিল জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সভা শেষে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, ওইদিন (৬ এপ্রিল) দেশের কোথাও শাবান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। তাই নিয়ম অনুযায়ী ১৪ শাবান রাত অর্থাৎ ২১ এপ্রিল রাতে শবে বরাত পালন করা হবে।

কিন্তু এরপর ‘মজলিসু রুইয়াতুল হিলাল’ নামের একটি সংগঠনের নেতারা এক সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন, গত ৬ এপ্রিল শাবানের চাঁদ দেখা গেছে এবং তা প্রশাসনকে জানানো হলেও সে অনুযায়ী সিদ্ধান্ত হয়নি।

এ পরিপ্রেক্ষিতে ইসলামিক ফাউন্ডেশনে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি বিশেষ সভায় বসে। ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর সভাপতিত্বে এই বৈঠকে মজলিসু রুইয়াতিল হিলালের প্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন। সে বৈঠকের পর এবিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে মাওলানা আব্দুল মালেককে আহ্বায়ক করে উপকমিটি গঠন করা হয়।

এই কমিটি তাদের (আপত্তিকারীদের) সঙ্গে কথা বলে ১৭ এপ্রিলের মধ্যে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাবেন বলে জানান ধর্ম প্রতিমন্ত্রী।

এমতাবস্থায় বিষয়টি নিয়ে হাইকোর্টে আসেন মজলিসু রুইয়াতুল হিলাল ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি সংগঠনের সভাপতি আবুল বাশার মুহম্মদ রুহুল হাসান সহ ১০ জন।

Bellow Post-Green View