চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

লন্ডন প্রবাসী থেকে ভাগ্যগুণে সংসদ সদস্য!

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা (দুই-তৃতীয়াংশ আসন) পেয়েছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। সব বিভাগ ও জেলাতে শুধুই নৌকার জয়জয়কার। এরই মধ্যে যেকয়জন অন্যদল থেকে নির্বাচিত হয়েছেন, তাদের মধ্যে সবচাইতে ভাগ্যবান প্রার্থীর নাম মোকাব্বির খান। গণফোরামের দলীয় প্রতীক (উদীয়মান সূর্য) নিয়ে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছেন তিনি।

সিলেট-২ আসনের ১২৭টি কেন্দ্রে ‘উদীয়মান সূর্য’ প্রতীকে ৬৯ হাজার ৪২০ ভোট পান মোকাব্বির খান। এবারই প্রথম তিনি সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন

এই আসনে ঐক্যজোট ও ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন কমিশনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন নিখোঁজ বিএনপি নেতা এম ইলিয়াস আলীর স্ত্রী তাহসিনা রুশদীর লুনা ও তার পুত্র ইলিয়াস আবরার অর্নব। মনোনয়নপত্র বাচাই শেষে ইলিয়াস পুত্র অর্নব মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করলে ধানের শীষের চুড়ান্ত প্রার্থী হয়ে নির্বাচনী মাঠে প্রচার প্রচারণা শুরু করেন তাহসিনা রুশদীর লুনা এবং প্রতীক বরাদ্ধের দিন লুনাকে সমর্থন জানিয়ে যুক্তরাজ্য চলে যান গণফোরামের প্রার্থী মোকাব্বির খান। পরে তাহসিনা রুশদীর লুনার প্রার্থিতা বাতিল হলে ঐক্যফ্রন্টের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের নির্দেশে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করতে যুক্তরাজ্য থেকে দেশে ফেরেন গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোকাব্বির খান।

নির্বাচনের সপ্তাহ খানেক আগে তাকে দলীয় জোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হিসেবে আনুষ্ঠানিক সমর্থন জানায় বিশ্বনাথ-ওসমানীনগর উপজেলার বিএনপি-জামায়াত।

বিজ্ঞাপন

তাহসিনা রুশদীর লুনা, ইলিয়াছ আলীর ছোট ভাই এম আছকির আলী ও ইলিয়াস পুত্র অর্নব অংশ নেন মোকাব্বির খানের প্রচারণায়। তারা বিভিন্ন সভা সমাবেশে আবেগময়ী বক্তব্য দেওয়ায় ভোটার সাধারণের মাঝে বিপুল সাড়া জাগে। ইলিয়াস আলীর প্রতি এই আসনের ভোটারা বেশ আবেগপ্রবন হওয়ায় ‘ধানের শীষ’ প্রতীকের স্থলে ‘উদীয়মান সূর্য’ প্রতীক চলে আসে মূল আলোচনায়।

২,৮৬,৩৮০ ভোটারের ওই আসনে প্রায় ৪০ হাজার ভোটের ব্যবধানে জয়ী হন মোকাব্বির। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী নেতা মুহিবুর রহমান ‘ডাব’ প্রতীকে পেয়েছেন ৩০ হাজার ৪২০ ভোট।

এছাড়া মহাজোটের প্রার্থী জাতীয় পার্টির বর্তমান সংসদ সদস্য ইয়াহ্ইয়া চৌধুরী ‘লাঙ্গল’ প্রতীকে পেয়েছেন ১৮ হাজার ৩২ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ ঘরনার হিসেবে পরিচিত অধ্যক্ষ ড. এনামুল হক সরদার ‘সিংহ’ প্রতীকে পেয়েছেন ২০ হাজার ৭৪৫ ভোট, খেলাফত মজলিসের প্রার্থী মুহাম্মদ মুনতাছির আলী ‘দেয়াল ঘড়ি’ প্রতীকে পেয়েছেন ৫হাজার ১৭১ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুর রব মল্লিক ‘কার’ প্রতীকে পেয়েছেন ১হাজার ১৭০ ভোট, ইসলামী আন্দোলনের মোঃ আমির উদ্দিন ‘হাত পাখা’ প্রতীকে পেয়েছেন ১হাজার ৭৪০ ভোট, এনপিপির মনোয়ার হোসাইন ‘আম’ প্রতীকে পেয়েছেন ১হাজার ১৫৬ ভোট ও বিএনএফ’র মোশাহিদ খান ‘টেলিভিশন’ প্রতীকে পেয়েছেন ২৭৬ ভোট।

বাংলাদেশে এই প্রথম বারের মতো গণফোরামের কোন প্রার্থী তাদের প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলেন।

Bellow Post-Green View