চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ভূমিকম্পের পর ভূমিকম্প

আবারো ভয়াবহ ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলো ইন্দোনেশিয়া

রোববারের ভয়াবহ ভূমিকম্পের রেশ না কাটতেই আবারও কেঁপে উঠল ইন্দোনেশিয়ার পর্যটন দ্বীপ লোম্বক। মার্কিন ভূ-তাত্ত্বিক গবেষণা সংস্থা ইউএসজিএসের তথ্য অনুসারে, ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৫.৯।

তবে ইন্দোনেশিয়ার ভূ-তাত্ত্বিক সংস্থা জানিয়েছে, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার দুপুর ১.২৫ মিনিটের দিকে লোম্বকের উত্তর-পশ্চিম উপকূল এলাকায় ৬.২ মাত্রার শক্তিশালী কম্পন অনুভূত হয়। অবশ্য ভূমিকম্প পরবর্তী কোনো সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়নি।

কম্পনে লোম্বকের বেশ কয়েকটি ভবন ধসে পড়েছে।

এবারের ভূমিকম্পটি রোববারের ভূমিকম্পেরই আফটারশক বলে জানিয়েছেন ইন্দোনেশিয়ার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থার মুখপাত্র সুতপো পরুয়ো নুগরোহো।

রোববারের পর থেকে ৩৪০টিরও বেশি আফটারশক হয়েছে এলাকাটিতে। ধারণা করা হচ্ছে, এবারের আফটারশকটিই সবচেয়ে তীব্র ছিল।

বিজ্ঞাপন

লোম্বকের কাছাকাছি অবস্থিত আরেক পর্যটন আকর্ষণ বালি দ্বীপেও আফটারশকের কম্পন অনুভূত হয়েছে বলে বিবিসি’কে জানিয়েছেন সেখানে থাকা এক ব্রিটিশ পর্যটক। ওই সময় আতঙ্কে লোকজন ঘর থেকে বেরিয়ে খোলা আকাশের নিচে আশ্রয় নেন।ইন্দোনেশিয়া-ভূমিকম্প-ভূমিকম্পের উদ্ধারকাজ

গত রোববার হওয়া ৭ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্পের উদ্ধার অভিযান এখনো চলছে। সরকারি হিসেবে ওই ভূমিকম্পে অন্তত ১৩১ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে স্থানীয় গণমাধ্যমের হিসেব অনুসারে মৃতের সংখ্যা ৩৪৭-এ গড়িয়েছে।

শুধু রোববারের ভূমিকম্পেই ১৪শ’র বেশি মানুষ আহত ও দেড় লাখের বেশি অধিবাসী ঘরহারা হয়েছে বলে জানিয়েছে সরকার। তার ওপর দফায় দফায় আফটারশকে উদ্ধারকাজ ব্যাহত হয়ে ক্ষতির পরিমাণ বাড়ছে।

তাই মৃতের সংখ্যা আরও অনেক বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ইন্দোনেশিয়া-ভূমিকম্প-ভূমিকম্পের উদ্ধারকাজ
ম্যাপ: বিবিসি

রেডক্রস এই দুর্যোগকে ‘অস্বাভাবিক রকম ধ্বংসাত্মক’ বলে অভিহিত করেছে। রেডক্রসের লোম্বক কর্মকর্তা ক্রিস্টোফার রাসি জানান, রোববারের ভূমিকম্পে বেশ কিছু গ্রাম একেবারে মাটির সাথে মিশে গেছে।

বিজ্ঞাপন