চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ভারত ম্যাচ বাংলাদেশ কোচের চোখে ‘আশীর্বাদ’

ফুটবলে প্রতিবেশী দেশ ভারতের নজরকাড়া উন্নতি জেমি ডে-কে মুগ্ধ করলেও খানিকটা শঙ্কাতেই আছেন বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের ব্রিটিশ কোচ। এই দলটার সঙ্গেই যে আগামী ১৫ অক্টোবর ২০২২ বিশ্বকাপ ও ২০২৩ এশিয়া কাপ বাছাইপর্বের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ খেলতে নামবে লাল-সবুজের দল।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে ১-০ গোলে প্রথম ম্যাচে হারার পর পাঁচ দিনের ব্যবধানে দুটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ খেলার অপেক্ষায় বাংলাদেশ। ১০ অক্টোবর ঘরের মাঠে বিশ্বকাপের স্বাগতিক কাতারকে আতিথ্য দেয়ার পর ১৫ অক্টোবর কলকাতায় ভারতের বিপক্ষে লড়বে জেমির শিষ্যরা।

অতীতে ফুটবলে ভারতের সঙ্গে সমানে সমান লড়াই করলেও নিজেদের ব্যর্থতায় পিছিয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। পারফরম্যান্স তলানিতে যেতে যেতে একটা সময় র‍্যাঙ্কিংয়ে দুইশর কাছাকাছি চলে গিয়েছিল দলটি। সেখান থেকে ডুবতে থাকা এক দলের কাণ্ডারি হয়ে টেনে তোলার দায়িত্ব নিয়েছেন জেমি। ইংলিশ জায়ান্ট আর্সেনালের একাডেমি থেকে উঠে আসা এ কোচের হাত ধরে সবশেষ ১০টি আন্তর্জাতিক ম্যাচে ৫টিতে জয় পেয়েছে লাল-সবুজরা। বাকি ৪টিতে দেখেছে হার।

উল্টোদিকে ভারতের উন্নতির গ্রাফ ছুটেছে রোলার কোস্টারের গতিতে! এশিয়ান জায়ান্ট হয়ে ওঠার লক্ষ্যে বেশ ভালোমতই পথে আছে তারা। খেলেছে এশিয়া কাপে। স্বপ্ন বিশ্বকাপ খেলার। বাছাইপর্বে কাতারকে তাদের মাঠেই রুখে দিয়ে চমকে দিয়েছে ইগর স্টিমাচের শিষ্যরা। প্রথম ম্যাচে এগিয়ে থেকেও শক্তিশালী ওমানের বিপক্ষে হেরেছে ২-১ গোলে।

বিজ্ঞাপন

স্টিমাচের অধীনে যেভাবে ছুটছে ভারত, গোল ডটকমের কাছে তার প্রশংসা করতে ভোলেননি জেমি ডে। প্রতিপক্ষ কোচের বিপক্ষে লড়াই করতে পারলে অনেক কিছু শেখার আছে বলে মনে করেন ৪০ বছর বয়সী ব্রিটিশ কোচ, ‘ব্যক্তিগতভাবে ইগরের সঙ্গে আমার পরিচয় নেই। তবে মনে হচ্ছে খেলোয়াড়রা তার অধীনে খেলাটা বেশ উপভোগ করে। আমার মনে হয় তার বিপক্ষে মাঠে নামলে নিজের অবস্থাটা বুঝতে পারবো। তাই তার সঙ্গে লড়াইয়ে মুখিয়ে আছি।’

ভারতের সঙ্গে লড়াইয়ে কৌশল কী হতে পারে? সাক্ষাৎকারে সেটা না বললেও জেমি তার প্রধান অস্ত্র মানছেন সহকারী কোচ স্টুয়ার্ট ওয়াটকিসকে। আই-লিগের দল ভারত এফসিকে কোচিং করানোর অভিজ্ঞতা থাকায় স্বদেশী সহকারীকে দিয়েই রণকৌশল সাজাতে চান বাংলাদেশ কোচ, ‘ভারতে কাজের অভিজ্ঞতা থাকায় স্টুয়ার্টের জ্ঞান আমাদের অনেক কাজে আসবে। কীভাবে তারা খেলে সেটাও আমরা জানতে পারবো।’

তবে ভারত ম্যাচের ফল কী হতে পারে সেই উত্তরটা কৌশলেই এড়িয়ে গেছেন জেমি। তার মতে সেরা ফলটা আফগানদের বিপক্ষেই পেতে পারতো বাংলাদেশ, ‘আফগানিস্তানের বিপক্ষে আমরা ফল পেতেই পারতাম। র‍্যাঙ্কিংয়ে অনেক এগিয়ে থাকা একটা দলের বিপক্ষে ফলটা অবশ্য খুব খারাপও না। আমাদের গ্রুপ অনেক কঠিন, তবে একটা তরুণ দলের জন্য এই অভিজ্ঞতা অনেক কাজেও দেবে।’

‘যতদ্রুত আমরা জাতীয় দলগুলোর সঙ্গে খেলতে পারবো, ততই উন্নতি করতে পারবো। আর বড় দলগুলোর বিপক্ষে ভালো পারফরম্যান্স আমাদের সামনে এগিয়ে নিতে সাহায্য করবে।’

বিজ্ঞাপন