চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ভারতে হ্রদের পানির রং হঠাৎ গোলাপি

ভারতের মহারাষ্ট্রে অবস্থিত একটি হ্রদের পানি আকস্মিকভাবে গোলাপি রং ধারণ করেছে। হ্রদটির এ আকস্মিক রঙ পরিবর্তন কৌতূহল আর প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে ভারতীয় বিশেষজ্ঞদের মনে।

দেশটির নাগপুরভিত্তিক ন্যাশনাল এনভায়রনমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং রিসার্চ ইনস্টিটিউটের একটি দল আগামী সপ্তাহে লেকটি পরিদর্শনে যাবেন এবং পানি সংগ্রহ করে তা পরীক্ষা করবেন বলে জানিয়েছে দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

বিজ্ঞাপন

ভারতের বাণিজ্যিক রাজধানী মুম্বাই থেকে পাঁচশ কিলোমিটার পূর্বে অবস্থিত এই হ্রদ ৫০ হাজার বছর আগে পৃথিবীতে একটি গ্রহাণুর আঘাতের ফলে জন্ম নেয়।

বিজ্ঞাপন

ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যে অবস্থিত লোনার হ্রদের পানি আকস্মিকভাবে গোলাপি বর্ণ ধারণের সঠিক কারণ বিশেষজ্ঞরা এখনও নিশ্চিত করতে পারেননি। তবে কয়েকটি সম্ভাব্য কারণ তারা ব্যাখ্যা করেছেন।

তাদের মতে, পানির লবণাক্ততা বৃদ্ধি অথবা লাল বর্ণের জলজ শৈবালের উপস্থিতি এমন রঙ পরিবর্তনের কারণ হতে পারে। অথবা এ দুইয়ের সম্মিলিত প্রভাবেও এমনটা ঘটা বিচিত্র কিছু নয়।

বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রের উটাহ অঙ্গরাজ্যের ‘গ্রেট সল্ট লেক’ এবং অস্ট্রেলিয়ার ‘লেক হিলার’-এর কিছু অংশেও এ দুটি কারণে পানির রঙ কিছু কিছু জায়গায় গোলাপি আভা ধারণ করেছে এর আগে।

মহারাষ্ট্র রাজ্য সরকারের পর্যটন বিভাগের টুইটার অ্যাকাউন্টে পোস্ট করা এক ভিডিওতে স্থানীয় ভূতত্ত্ববিদ গজানন খারাত জানান, এর আগেও হ্রদের পানির রঙ পরিবর্তন হয়েছে। কিন্তু কোনোবারই তা এতটা দৃশ্যমান হয়নি।

গজানন বলেন, চলতি বছর পানির লবণাক্ততা বাড়ায় পানির রঙ লাল হয়ে উঠেছে। তীব্র উত্তাপে পানি শুকিয়ে হ্রদের আকার হ্রাস পাওয়ায় এমনটা হতে পারে।

লাল রঙের জলজ শৈবালের উপস্থিতির কারণেও এ পরিবর্তন হয়েছে কিনা, তা নিয়ে অনুসন্ধান করছেন স্থানীয় গবেষকরা। ইতোমধ্যেই পানির নমুনা সংগ্রহ করে ভারতের বিভিন্ন গবেষণাগারে পাঠানো হয়েছে। পরীক্ষার পরই পানির লোহিত বা আংশিক গোলাপি আভা ধারণের প্রকৃত কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে জানান গজানন খারাত।

লোনার হ্রদ পর্যটনের জন্য খুবই জনপ্রিয়। পাশাপাশি বিশ্বজুড়ে বিজ্ঞানীরাও এই হ্রদ নিয়ে অনেক গবেষণা করেন।