চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিভেদ থাকলেও জেনেভা আলোচনার প্রশংসায় বাইডেন-পুতিন

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বৈঠকের অগ্রগতি যদিও খুব কম, তবে ২০১৮ সালের পরে প্রথম হওয়া এই বৈঠকে দুজনেই জেনেভা আলোচনার প্রশংসা করেছেন।

জো বাইডেন বলেন, মতবিরোধের বিষয়গুলো নিয়ে কথা হয়েছে। কিন্তু রাশিয়া আর কোনো নতুন স্নায়ুযুদ্ধ চায় না।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেন, বাইডেন একজন অভিজ্ঞতাসম্পন্ন রাষ্ট্রনায়ক এবং দুজনে একই ভাষায় কথা বলেছেন।

প্রায় তিন ঘণ্টাব্যাপী ওই আলোচনা হয়েছে, তবে যতটা সময়ব্যাপী আলোচনা হওয়ার কথা ছিলো তার থেকে কম সময় চলে আলোচনা।

বাইডেন বলেন, কথা বলার জন্য আর বেশি সময় ব্যয় করার দরকার নেই এবং রাশিয়ার সাথে সম্পর্কের উন্নতি করার এখন এক আসল সম্ভাবনা রয়েছে। 

বাইডেন রাশিয়ান এই নেতার জন্য উপহার হিসেবে তার পছন্দের বিশেষভাবে তৈরি অ্যাভিয়েটর সানগ্লাস আর বাইসনের একটি ক্রিস্টালের মূর্তি নিয়ে যান।

পুতিন বাইডেনকে কোনো উপহার দিয়েছেন কিনা তা জানা যায়নি। এর আগে ২০১৮ সালে ফিনল্যান্ডের হেলসিংকিতে এক আলোচনা শেষে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে সসার বল উপহার দিয়েছিলেন পুতিন।

দুই পক্ষই পারমাণবিক অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আলোচনা শুরু করতে সম্মত হয়েছে। একে অন্যের রাজধানীতে রাষ্ট্রদূত পাঠানোরও কথা বলেছেন তারা। এর আগে ২০২০ সালের মার্কিন নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপের অভিযোগ তোলায় মার্চে পরামর্শের জন্য দুই দেশ থেকেই রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার করা হয়।

তবে অন্যান্য কিছু বিষয়ে মতৈক্য দেখা দিয়েছে। যেমন সাইবার নিরাপত্তা, ইউক্রেন এবং রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতা অ্যালেক্সেই নাভালনির ভাগ্য।

আলোচনায় বাইডেন বলেন, নাভালনি কারাগারেই মৃত্যুবরণ করলে রাশিয়ার জন্য ধ্বংসাত্বক পরিণতি বয়ে আসবে।

বিজ্ঞাপন