চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিচারহীনতার কারণেই সাধারণ মানুষ হত্যাকাণ্ডের শিকার: নজরুল ইসলাম

হত্যাকাণ্ডের বিচার না হওয়ার কারণে এখন সাধারণ মানুষ হত্যাকাণ্ডের শিকার হচ্ছেন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

বৃহস্পতিবার প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

নজরুল ইসলাম খান বলেন, মানুষ খুন হয়ে যায়। সাগর-রুনির হত্যাকাণ্ডের কথা আমরা জানি। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে এর রহস্য উদঘাটন করে খুনিদেরকে গ্রেপ্তার করা হবে। এখন এই হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তার করতে ৪৮ বছর লাগবে কিনা সেটাই দেখার বিষয়।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, এসব হত্যাকাণ্ডের বিচার হয় না। তাই আজ শুধু বিরোধী দলের নেতাকর্মীরা নয়, সাধারণ মানুষ হত্যাকাণ্ডের শিকার হচ্ছেন। বরগুনায় স্ত্রীর সামনে প্রকাশ্যে তার স্বামীকে হত্যা করা হয়েছে।  সন্তানের সামনে বাবাকে হত্যা করা হচ্ছে। এ অবস্থা চলতে দেয়া যায় না।

বিএনপির এই নেতা বলেন, আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে বলতে চাই, এমন একটা দেশের জন্য আমরা মুক্তিযুদ্ধ করিনি। আমরা যুদ্ধ করেছি একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের জন্য। আর গণতন্ত্রের বাহন হলো নির্বাচন। আজ সেই নির্বাচনে জনগণকে ভোট দিতে দেয়া হয়নি। জনগণ যদি ভোট দিতে না পারে তবে সেটাকে নির্বাচন বলা যায় না। আজ দেশের মানুষ এক মহাসংকট অতিক্রম করেছে। মানুষকে এ সংকট থেকে রক্ষা করতে হবে।

খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও নিরপেক্ষ জাতীয় নির্বাচনের দাবিতে লেবার পার্টি কতৃক আয়োজিত সংহতি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে  নজরুল ইসলাম খান আরো বলেন, এক মিথ্যা মামলায় ফরমায়েশী রায়ের মাধ্যমে এক বছরের বেশি দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে। তিনি দিনদিন অসুস্থ হয়ে পরছেন। আমরা অবিলম্বে তার মুক্তি কামনা করছি।  দেশের প্রচলিত আইনের মাধ্যমেই দেশনেত্রীর জামিন হতে পারে। কিন্তু নানা কৌশলে তার জামিন ও মুক্তি বিলম্বিত করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি আর গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার লড়াই একসাথে গেঁথে আছে। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্যই বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি প্রয়োজন।