চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বাংলা ছবির জন্য বলিউডে তারকাখ্যাতি হারিয়েছিলেন চাঙ্কি পাণ্ডে?

একজন অভিনেতার জন্য জনপ্রিয়তা কতোটা গুরুত্বপূর্ণ তা সবারই জানা। স্পট লাইটে আসার জন্য বছরের পর বছর পরিশ্রম করতে হয়। কিন্তু এত পরিশ্রমের পরেও কোনো শিল্পীর যদি মনে হয় যে তিনি দর্শকের মন থেকে হারিয়ে গেছেন, তখন কেমন লাগবে? এমনটাই হয়েছে বলিউড অভিনেতা চাঙ্কি পাণ্ডের সঙ্গে।

চাঙ্কি পাণ্ডে সফলতাও যেমন দেখেছেন, ব্যর্থ সময়ও কাটিয়েছেন। তিন দশকের ক্যারিয়ারে ছিল চড়াই উতরাই। ভারতের শীর্ষ গণমাধ্যম এনডিটিভিকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেছেন তার উত্থান-পতন এবং নিজেকে বদলানোর সংগ্রামের কথা।

বিজ্ঞাপন

চাঙ্কি পাণ্ডে বলেন, ‘আমার ভাগ্যেই ছিল উঠা এবং পড়ে যাওয়া। সাফল্য পেয়েছি, ব্যর্থও হয়েছি। সত্যি বলতে আমার কোনো আফসোস নেই। সবসময়ে তো টপে থাকা যায়না।’

চাঙ্কি পাণ্ডে মূল চরিত্রে প্রথম অভিনয় করেন ১৯৮৭-এ মুক্তি পাওয়া ‘আগ হি আগ’ ছবিতে। অ্যাকশন হিরো হিসেবে দর্শকের ভালোবাসা পান চাঙ্কি পাণ্ডে। এরপর আখে, পাপ কি দুনিয়া, গুনাহো কা ফয়সালা, তেজাব, খাতরো কি খিলাড়ির মতো একাধিক জনপ্রিয় ছবিতে অভিনয় করেছেন। জনপ্রিয়তায় অনিল কাপুর, সানি দেওলদের চেয়ে এগিয়ে ছিলেন। তবে সাফল্য বেশীদিন স্থায়ী হয়নি।

ভালো ছবি করলেও একের পর এক ফ্লপের কারণে ভালো চরিত্রে কাজ করার প্রস্তাব কম পাওয়ায় কিছুদিন বাংলাদেশের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করেন চাঙ্কি পাণ্ডে। বেশকিছু ছবিতেও তখন অভিনয় করেছেন তিনি। এরমধ্যে স্বামী কেন আসামী কিংবা প্রেম করেছি বেশ করেছি ছবিগুলো উল্লেখযোগ্য। কিন্তু বাংলাদেশের পাট চুকিয়ে যখন ফের ভারতে ফিরেছেন, তখন বুঝতে পেরেছেন যে তারকাখ্যাতি হারিয়ে ফেলেছেন তিনি।

এই প্রসঙ্গে অভিনেতা বলেন, ‘বাংলাদেশ থেকে প্রায় আট বছর পর ফিরে যখন ভারতে কাজ করা শুরু করি, তখন বুঝলাম যে মানুষ আমাকে ভুলে গেছে। অনেক শিশু আমার নামও জানে না। তাই আমি শিশুদের ছবিতে কাজ করার সিদ্ধান্ত নেই এবং এমন চরিত্রে অভিনয় শুরু করি যেগুলো শিশুদের আনন্দ দিবে।’

তারকাখ্যাতি ‘মিস’ করেন কিনা জিজ্ঞেস করা হলে চাঙ্কি পাণ্ডে বলেন, ‘তেমন না। আমি ভাগ্যবান যে সেটা পেয়েছিলাম। অনেকে তো সেই সুযোগও পায় না।’

৫৬ বছর বয়সী এই তারকা কাজ করেছেন প্রায় ৮০টি ছবিতে। তিনি এখন নতুন করে নিজেকে গড়তে চান। তার মতে, শিল্পীর উচিত নিজেকে সময়ের সাথে সাথে বদলে ফেলা। তিনি বলেন, ‘জীবনে শুধু নিজেকে বদলে ফেলাটাই সত্য। নিজেকে বদলানোর জন্য সবসময় প্রস্তুত থাকতে হবে। গত দুই বছর ধরে আমি চেষ্টা করছি ভিন্ন ধরণের চরিত্রে অভিনয় করার। বর্তমান সময়ের দর্শকরাও ভিন্ন কিছু দেখতে চায়।’

চাঙ্কি পাণ্ডে সম্প্রতি প্রবীণ ফারনান্দেজের শর্ট ফিল্ম ‘টপ টপ’-এর একটি দৃশ্যের শুটিং শেষ করেছেন। এছাড়াও তাকে দেখা যাবে ‘সাহো’ এবং ‘হাউজফুল ফোর’-এ। এনডিটিভি