চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফ্লয়েড-নিখিল হত্যার প্রতিবাদে ২৭ সংস্কৃতিজনের বিবৃতি

যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ নাগরিক জর্জ ফ্লয়েড ও গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় নিখিল তালুকদারের মৃত্যুর ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন দেশের বিশিষ্ট ২৭ জন শিক্ষক, সাহিত্যিক ও সংস্কৃতি কর্মী।

জর্জ ফ্লয়েড হত্যার ঘটনার প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রে এখন যে আন্দোলন চলছে তার সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে সংস্কৃতিজনরা বলেছেন, ‘আমরা বিশ্বের সকল মানুষের সঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়ে বিশ্ব হতে বর্ণবাদ, মৌলবাদ, বৈষম্য ও সাম্প্রদায়িকতা উৎখাতের আহ্বান জানাচ্ছি।’

বিজ্ঞাপন

বার্তা প্রেরক ও সংস্কৃতিজন নাসিরউদ্দিন ইউসুফ ছাড়াও বিবৃতিতে স্বাক্ষরকারীদের মধ্যে রয়েছেন আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী, হাসান আজিজুল হক, অনুপম সেন, রামেন্দু মজুমদারসহ অন্যান্যরা।

বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রে জর্জ ফ্লয়েড ও বাংলাদেশে নিখিল-দুই হত্যাকাণ্ডের আশু বিচার ও দোষীর সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করে তারা বলেন, ‘আজ পুরো বিশ্ব যখন কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে লিপ্ত। যখন করোনা ধনী-গরীব, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকল মানুষকে একই সমতলে নিয়ে এসেছে। করোনাকে পরাস্ত করতে যখন মানুষের ঐক্যের কণ্ঠস্বর শ্রুত দিকেদিকে। ঠিক তখন গণতন্ত্রের ধ্বজাধারী রাষ্ট্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ এক নাগরিক জর্জ ফ্লয়েডকে প্রকাশ্য দিবালোকে রাস্তায় শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে রাষ্ট্রীয় পুলিশ। ভীবৎস সেই হত্যাদৃশ্য দেখে পৃথিবী স্তম্ভিত। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এ চেহারা নতুন নয়। কিন্তু একবিংশ শতাব্দীতে তা আরও প্রকট হয়ে উঠেছে। তার নগ্ন দৃষ্টান্ত শ্বেতাঙ্গ পুলিশের হাতে জর্জ ফ্লয়েডের হত্যাকাণ্ড।’

যুক্তরাষ্ট্রের আন্দোলনকারীদের প্রতি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের হুমকির নিন্দা জানিয়ে তারা বলেন, ‘আমরা এই নির্মম হত্যাকাণ্ডে বিশ্ববাসীর মতই স্তম্ভিত ও ক্ষুব্ধ। রাষ্ট্রের এই বর্ণবাদী চরিত্রের বিরুদ্ধে খোদ যুক্তরাষ্ট্রের জনগণ অতীতের মতো রুখে দাঁড়িয়েছে। এবং গোটা বিশ্ব আজ এই হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ মুখর। আমরা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জনগণের সঙ্গে এই আন্দোলনে একাত্মতা প্রকাশ করছি।’

গোপালগঞ্জের ঘটনা প্রসঙ্গে তারা বলেন, ‘গত ২ জুন কোটালীপাড়ায় নিখিল তালুকদার নামে এক কৃষককে পুলিশের এক উপসহকারী পরিদর্শক নির্মমভাবে হত্যা করে। নিখিলের শিরদাঁড়া হাঁটু দিয়ে চাপ প্রয়োগ করে ভেঙে দেয় এবং নিখিলের মৃত্যু ঘটে। …আমরা এই ভয়ানক হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে দোষীর সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করছি।’

বিবৃতিতে আরও স্বাক্ষর করেন আতাউর রহমান, সারোয়ার আলী, ফেরদৌসী মজুমদার, আবদুস সেলিম, ইনামুল হক, মামুনুর রশীদ, হাবীবুল্লাহ সিরাজী, মফিদুল হক, শফি আহমেদ, নূরুল হুদা, লাকী ইনাম, সারা যাকের, শিমূল ইউসুফ, মুহাম্মদ সামাদ, রাজু আলাউদ্দিন, গোলাম কুদ্দুছ, মান্নান হীরা, হাসান আরিফ, কামাল বায়েজীদ, আহকাম উল্লাহ, তারিক সুজাত, ও তারানা হালিম।