চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফেরার লড়াইয়ে ইয়াসিন

চোটের সঙ্গে লড়াই ইয়াসিন আরাফাত মিশুর জন্য নতুন কিছু নয়। নিউজিল্যান্ডে ২০১৮ সালের যুব বিশ্বকাপে যেতে পারেননি চোটের কারণেই। পরে ঘরোয়া লিগে নেমে করেছিলেন দুর্দান্ত বোলিং। ডাক এসেছিল জাতীয় দলেও।

কিন্তু ম্যাচ খেলতে নামার আগেই ফিরে আসে মেরুদণ্ডের পুরনো চোট। ৬ ফুট ১ ইঞ্চি উচ্চতার ডানহাতি পেসার আবার মাঠে ফেরার লড়াইয়ে।

বিজ্ঞাপন

করোনা বিরতি কাটিয়ে মিরপুরে শুরু হয়েছে ইয়াসিনের পুনর্বাসন প্রক্রিয়া। জাতীয় দলের ফিজিও জুলিয়ান ক্যালেফাতোর অধীনে তরুণ পেসার করছেন ফেরার লড়াই।

ইয়াসিন সবশেষ খেলেছিলেন ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বিসিবি একাদশের হয়ে প্রস্তুতি ম্যাচে। ত্রিদেশীয় টি-টুয়েন্টি সিরিজে নামার আগেই চোটের কারণে ছিটকে পড়েন দল থেকে। এক বছরেরও বেশি সময় ধরে খেলার বাইরে সম্ভাবনাময় এ পেসার।

বিজ্ঞাপন

আগেও বহুবার চোটে পড়েছেন ইয়াসিন। এতটা দীর্ঘ সময় মাঠের বাইরে থাকতে হয়নি কখনোই। চোটের কারণে জায়গা হয়নি বিসিবির হাই-পারফরম্যান্স (এইচপি) স্কোয়াডে। খেলতে পারেননি প্রেসিডেন্টস কাপেও।

দ্রুত সেরে উঠলে বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপ হতে পারে ইয়াসিনের ম্যাচে ফেরার উপলক্ষ, ‘এতটা সময় কখনো মাঠের বাইরে থাকিনি। কঠিন সময় পার করেছি। করোনা পরিস্থিতির কারণে সময়টা খুব বেশি খেলা হয়নি। আমি ফিটনেসের কাজ যতটা পারি ঘরে বসে করে গেছি। এখন বিসিবির অধীনে শুরু করলাম। আশা করি দ্রুতই ফিরতে পারব।’

বিসিবি চিকিৎসক ডা. দেবাশীষ চৌধুরী জানালেন, ‘ইয়াসিনের স্পাইনাল কর্ডে (মেরুদণ্ড) স্ট্রেস ফ্র্যাকচার হয়েছে। এখন কী অবস্থায় আছে সেটি বোঝার দুটি উপায়ের একটি হল স্ক্যান, আরেকটি উপসর্গ দেখে বোঝা। আমরা উপসর্গ দেখে বোঝার চেষ্টা করছি। আগের চেয়ে অনেক ভালো অবস্থায় আছে। কিছুদিন গেলে বোঝা যাবে কখন পুরোদমে বোলিং শুরু করতে পারবে।’

গত মাসে বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ শুরুর আগে চোটে পড়েন অনূর্ধ্ব-১৯ দলের পেসার মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী, হাসান মাহমুদ। দেবাশীষ জানালেন, মৃত্যুঞ্জয়কে আরও কিছুদিন থাকতে হবে পুনর্বাসনে। আর হাসান শুরু করেছেন অনুশীলন।