চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফারুকীর ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’-এ যুক্ত হলো বঙ্গ

শিগগির শুরু হচ্ছে দেশের সিনেমায় নতুন ধারা প্রবর্তনকারী পরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর আলোচিত চলচ্চিত্র ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’। যৌথ প্রযোজনায় নির্মিতব্য এই ছবির সঙ্গে যুক্ত হলো দেশের জনপ্রিয় ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম বঙ্গ।

ইতোমধ্যেই এই ছবির সহ-প্রযোজনায় যুক্ত আছেন বলিউডের নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী, স্কয়ার গ্রুপের অঞ্জন চৌধুরী, নুসরাত ইমরোজ তিশা, ভারতীয় বংশদ্ভূত মার্কিন প্রযোজক শ্রীহরি ও ফারুকীর ছবিয়াল। এবার এই ছবির সহ-প্রযোজনায় যুুুুক্ত হলো বঙ্গ।

বিজ্ঞাপন

বিষয়টি নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বঙ্গ’র পরিচালক মুশফিকুর রহমান চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, এ সিনেমার সাথে আজ যুক্ত হতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত এবং গর্বিত।

এই ছবির সাথে যুক্ত হওয়ার কারণ জানিয়ে বঙ্গ থেকে বলা হয়: মোস্তফা সরয়ার ফারুকী একজন বিশ্বমানের পরিচালক। আরো আছেন নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকীর মতো ভার্সেটাইল অভিনেতা। সেই সাথে এশিয়া, অস্ট্রেলিয়া এবং আমেরিকা-তিনটি মহাদেশে বিস্তৃত এই সিনেমার প্লট। সব দিক বিবেচনা করেই এই ছবির সাথে যুক্ত হওয়া।

‘নো ল্যান্ডস ম্যান’ নিয়ে আমরা অভাবনীয় এবং অভুতপূর্ব কিছু আশা করছি। আমরা চাই আমরা চাই আমাদের প্রত্যাশাকেও ছাপিয়ে যাক ফারুকীর আন্তর্জাতিক এই ছবির সফলতা।-এমনটাই জানান বঙ্গের পরিচালক মুশফিক।

সিনেমা প্রযোজনায় বঙ্গের মতো প্লাটফর্মের যুক্ত হওয়াকে আগামি দিনের বাংলা সিনেমার জন্য সবুজ সংকেত বলে মনে করছেন মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। তিনি বলেন, আমরা বহুদিন ধরেই বঙ্গ’র কাজকর্ম দেখছি। অনলাইনে কন্টেন্ট সরবরাহের মধ্য দিয়ে তারা প্রচুর মানুষের কাছে পৌঁছে গেছে, ভরসার জায়গা তৈরী করেছে। সিনেমা নিয়েও তাদের পরিকল্পনা শুনে আমরা আশাবাদী। ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’-এর সহ-প্রযোজনায় যুক্ত হওয়ায় তাদের অভিনন্দন।

নো ল্যান্ডস ম্যান-এর কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করছে বলিউডের দাপুটে অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী ও অস্ট্রেলিয়ান তারকা মেগান মিচেল।সামনে অভিনেতা-অভিনেত্রীর বিষয়ে আরো কিছু চমক আছে বলে জানান নির্মাতা ফারুকী।

ফারুকীর নতুন ছবিতে যুক্ত হওয়া প্রসঙ্গে ভ্যারাইটিকে নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী বলেন, এই সিনেমার চিত্রনাট্যটা আমি প্রথম যখন পড়ি তখন থেকে এটি আমার সাথে রয়ে গেছে। জোরালো রসবোধ, ব্যাঙ্গ-বিদ্রুপ এবং আবেগের মধ্য দিয়ে আজকের যুগের এক অদ্ভুত পৃথিবীকে আবিষ্কার করে এই চিত্রনাট্য। কিছু সিনেমা আছে যেগুলো আপনার অবশ্যই বানানো উচিত। একজন অভিনেতার সামর্থ্যের বাইরেও এই প্রজেক্টের সাথে যুক্ত হওয়ার জন্য আমি নিজের ভিতর একটা তাগিদ অনুভব করছিলাম, কারণ আমার মনে হয়েছে এটা এমন একটা সিনেমা অবশ্যই যেটা তৈরি হওয়া দরকার।

‘নো ল্যান্ডস ম্যান’ হতে যাচ্ছে ফারুকীর প্রথম ইংরেজি ভাষার চলচ্চিত্র। এরআগে এই ছবির চিত্রনাট্য একাধিক ফেস্টিভালে ফান্ড জিতে নেয়। ২০১৪ সালে প্রথম বুসান ফিল্ম ফেস্টিভালে এশিয়ান প্রজেক্ট মার্কেটে নির্বাচিত হয়। এরপর একই বছর নভেম্বরে ভারতের এনএফডিসি আয়োজিত ফিল্ম বাজারে শ্রেষ্ঠ প্রজেক্টের পুরস্কার লাভ করে। একই বছরের ডিসেম্বরে মোশন পিকচার্স অ্যাসোসিয়েশন অফ আমেরিকা এবং এশিয়া প্যাসিফিক স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড-এর যৌথ উদ্যোগে দেয়া অ্যাপসা ফিল্ম ফান্ড লাভ করে। প্রতিবছর এশিয়ার দুটি চলচ্চিত্রকে এই ফিল্ম ফান্ডের জন্য নির্বাচিত করা হয়। ২০১৪ সালে এটি পেয়েছিলেন পরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকী এবং ইরানের বিখ্যাত নির্মাতা জাফর পানাহি।

Bellow Post-Green View